• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ১৩ জানুয়ারি ২০২০ ২২:১২:২৯
  • ১৩ জানুয়ারি ২০২০ ২২:১২:২৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ক্রিকেট জীবনের সবচেয়ে বড় একটি অংশ : মাশরাফি

ছবি : সংগৃহীত

এশিয়া কাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে এক হাত দিয়ে ব্যাটিং করে ইতিহাসের পাতায় নাম লিখিয়েছিলেন বাঁহাতি ওপেনার তামিম ইকবাল। সাহসী সিদ্ধান্তে এদিন তিনি মন জয় করে নিয়েছিলেন কোটি কোটি বাঙালির। এবার বিপিএলে হাতে ১৪টি সেলাই নিয়ে খেলে অনন্য দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন জাতীয় দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা।

প্রেক্ষাপট ভিন্ন, জাতীয় দল ও বিপিএলে অনেক তফাৎ। তবুও খেলা তো! খুলনার বিপক্ষে ফিল্ডিংয়ের সময় হাত যখন ফেটে যায় তখনই মাশরাফি সিদ্ধান্ত নেন তিনি খেলবেন! কথাটি জানিয়েছেনও তিনি।

তামিমের ভাঙা আঙ্গুলের খেলার পেছনেও মাশরাফির অবদান অনেক। সে ম্যাচটি জিতেছিল বাংলাদেশ। তবে সেলাই পড়া হাতে খেলে নিজের দল ঢাকাকে জেতাতে পারেননি মাশরাফি।

দল না জিতলেও সবুজ গালিচায় মাশরাফি ছিলেন অনন্য। খেলেছেন মন-প্রাণ উজাড় করে। চার ওভার বোলিং করেছেন, এক হাত দিয়ে দুর্দান্ত ক্যাচে ফিরিয়েছেন গেইলকে।

ইনিংস শেষে ঢাকার অধিনায়ক মাশরাফির হাত দেখতে আসেন ক্যারিবীয় ব্যাটসম্যান ক্রিসে গেইল
ম্যাচ শেষে সোমবার সন্ধ্যায় নির্ধারিত সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফির কাছে প্রথম প্রশ্ন ছিল এ বিষয়েই। জীবনের চেয়ে ক্রিকেট বড় কিনা, প্রশ্নের জবাবে মাশরাফি বললেন, ‘জীবনের থেকে ক্রিকেট অবশ্যই বেশি না। তবে ক্রিকেট জীবনের সবচেয়ে বড় একটি অংশ।’

এক হাত দিয়ে ক্যাচ নিয়েছেন গেইলের। ক্যাচ যখন আসে মাশরাফির মনে কী ঘুরছিল, ধরবেন কি ধরবেন না? তিনি বলেন, ‘ক্যাচের কথা আসলে... চলে আসছে, অপশন ছিল না দুই হাত দেয়ার। খুব দ্রুত আসলে কি হতো জানি না। কেননা খেলার সময় অনেক দ্রুত চলে যায় হাত। বলটা একটু আস্তে ছিল, এজন্য আমি সময় পেয়েছি এক হাত দিয়ে ধরার জন্য।’

বিপিএলের অন্যতম সফল অধিনায়ক মাশরাফি মর্তুজা। গত ছয় আসরের চারবারই তার হাতে উঠেছে চ্যাম্পিয়নের ট্রফি। এবার আর পারলেন না, চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিপক্ষে সাত উইকেটে হেরে বিদায় নিতে হয় এলিমেনটর থেকেই। তো আগামী আসরে দেখা যেবে মাশরাফিকে? মাশরাফির উত্তর, ‘পরের বিপিএলে দেখি নিলামে দল পাই কিনা। এরপর দেখা যাবে।’

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0245 seconds.