• ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯ ১৯:৫৯:০৫
  • ০৪ ডিসেম্বর ২০১৯ ১৯:৫৯:০৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

ক্লাস ছেড়ে ফসলের জমিতে যবিপ্রবির শিক্ষার্থীরা

ছবি : বাংলা

যবিপ্রবি প্রতিনিধি :

যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (যবিপ্রবি) পরিবেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ( ইএসটি ) বিভাগের শিক্ষার্থীরা যশোর রিজিওনাল কৃষি গবেষণা কেন্দ্র (বারি) এর বিভিন্ন গবেষণা ও উদ্ভাবনী প্রক্রিয়া পর্যবেক্ষণ করেছে। এসময় বাংলাদেশের বর্তমানে ব্যবহৃত কৃষি প্রযুক্তি, আবিষ্কৃত নতুন জাত, কৃষি ক্ষেত্রে সমস্যা এবং এর সমাধানের উপায় সম্পর্কে ধারণা দেন বাংলাদেশ রাইস রিসার্চ ইনস্টিটিউট যশোরের সিনিয়র সাইন্টিফিক অফিসার হাফিজুর রহমান ও তানজির সুরাইয়া মুনমুন। এছাড়াও বিভিন্ন কৃষি যন্ত্রপাতি সম্পর্কে ধারণা দেন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা রেজাউল করিম। 

বুধবার, ৪ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় যশোর রিজওনাল কৃষি গবেষণা কেন্দ্র পর্যবেক্ষণে আসে যবিপ্রবির ইএসটি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীরা। এসময় শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন ফসলি জমি ঘুরিয়ে দেখান এবং জমি আবাদ, বিভিন্ন ফসল রোপন- পরিচর্চা এবং উৎপাদন সম্পর্কে ধারণা দেন দায়িত্বরত কর্মকর্তারা। সিনিয়র সায়েন্টিফিক অফিসার হাফিজুর রহমান বলেন, বাংলাদেশের মোট ফসলের তিন ভাগের দুই ভাগ আমাদের আমদানি করতে হয় এবং এক ভাগ উৎপাদন হয় আমাদের দেশে। যার কারণে কৃষি ক্ষেত্রে নতুন নতুন প্রযুক্তি এবং উচ্চফলনশীল জাত উদ্ভাবন করা আমাদের জন্য খুবই জরুরী।

বর্তমানে চাষাবাদের জমি কমে যাওয়ার কারণে আমাদের একই জমিতে বারবার চাষাবাদ করা হচ্ছে, যার কারণে জমির উর্বরতা হ্রাস পাচ্ছে দিন দিন।  এই সমস্যা সমাধানের জন্য আমরা নতুন ফসলের পরিকল্পনা করেছি, যেখানে একই জমিতে একই সাথে পাঁচটি ফসল চাষাবাদ করা সম্ভব এতে মাটির গুনাগুন এর কোন সমস্যা হবে না। শুধুমাত্র মাটিকে তার প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদানের যোগান দিতে হবে।  আমরা সাময়িক ভাবে এই প্রক্রিয়া চালিয়ে যাচ্ছে এবং গত বছর সফলভাবে তা সম্পাদন করতে পেরেছি। আশা করি খুব দ্রুত আমাদের দেশে এ ধরনের চাষাবাদ ছড়িয়ে পড়বে চারিদিকে।

এছাড়া তিনি বিভিন্ন সবজির এবং ফসলের খাদ্যগুণ বিভিন্ন রোগ এবং এর প্রতিকার সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের ধারণা দেন। মিষ্টি আলু সম্পর্কে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, মিষ্টি আলু এমন একটি ফসল যা গর্ভবতী মায়ের জন্য খুবই উপকারী গর্ভবতী মায়েরা যদি প্রতিদিন মিষ্টি আলু খায় তাহলে তাদেরকে আলাদা করে ভিটামিন এ ক্যাপসুল দেয়ার কোন প্রয়োজন হয় না। কিন্তু বর্তমানে অধিকাংশ নারী এই বিষয়ে জানেন না। এছাড়াও বিভিন্ন ফসলের রোগ এবং এর আগমন সম্পর্কে শিক্ষার্থীদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, বাংলাদেশে যেসব রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা যায় ফসলি জমিতে তার অধিকাংশই আসে পশ্চিমাবিশ্ব থেকে অর্থাৎ আমেরিকায় উৎপত্তি হয় তারপর আফ্রিকা হয়ে ভারত, বাংলাদেশ ও মায়ানমারের ছড়ায়। এরপর অধিকাংশ সময় দেখা যায় রোগ আর বিস্তার লাভ করতে পারে না। 

এছাড়াও সায়েন্টিফিক অফিসার তানজির সুরাইয়া মুনমুন আলোকচিত্রের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রকার পোকা, লার্ভা, কীট এবং ব্যাকটেরিয়া ছবি প্রদর্শন করে যা ফসলের ক্ষতি সাধন করে। এসময় তিনি এসব রোগের বিস্তারের কারণ এবং সমাধানের পদ্ধতি সম্পর্কে ধারণা দেন শিক্ষার্থীদের। বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা রেজাউল করিম বর্তমানে কৃষিক্ষেত্রে ব্যবহৃত বিভিন্ন যন্ত্রপাতির সাথে  শিক্ষার্থীদের পরিচয় করিয়ে দেন এবং এদের কার্যপদ্ধতি বর্ণনা করেন। এসময় তিনি বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশের ব্যবহৃত বিভিন্ন কৃষি প্রযুক্তি  ভারত ও চীনে ব্যবহৃত হচ্ছে। তারা কিছু কিছু ক্ষেত্রে আমাদের উদ্ভাবিত নতুন যন্ত্রপাতি ব্যবহার করছে তাদের কৃষি জমিতে।
 
এসময় শিক্ষার্থীদের সার্বিক দায়িত্বে ছিলেন পরিবেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের অধ্যাপক কে এম দেলোয়ার হোসেন ও প্রভাষক ছাবিহা সরোয়ার। দেলোয়ার হোসেন বলেন, এ ধরনের ফিল্ডট্রিপ শিক্ষার্থীদের একদিকে যেমন কৃষি কাজে ব্যবহৃত নতুন প্রযুক্তির সাথে পরিচয় করিয়ে দেবে অন্যদিকে এই বিষয়ে তাদের জানার আগ্রহ আরো বাড়িয়ে তুলবে, যা তাদের জ্ঞানের পরিধি বাড়িয়ে তুলবে। আমি আশা রাখি এই ধরনের কর্মকাণ্ড ভবিষ্যতে নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবনে আমাদের শিক্ষার্থীদের আরো আগ্রহী করে তুলবে।।

বাংলা/এএএ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0197 seconds.