• বাংলা ডেস্ক
  • ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ২৩:১৪:৪০
  • ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ২৩:১৪:৪০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

চিনি এবং মস্তিষ্ক : একটি বিপজ্জনক বন্ধুত্ব

ছবি : সংগৃহীত

মানুষ কেন মিষ্টি জাতীয় খাবার বেশি পছন্দ করে? এধরনের খাবার চোখের সামনে থাকলে কেন কোনভাবেই লোভ সংবরণ করা যায় না? বিষয়টি নিয়ে হয়তো অনেকেই ভেবেছেন। মূলত আমাদের মস্তিষ্কে সংরক্ষিত পূর্বপুরুষদের স্মৃতি এবং মস্তিষ্কের রাসায়নিক পদার্থের কারণে এটি হয় বলে সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

সম্প্রতি বিজ্ঞানভিত্তিক খবরের ওয়েবসাইট লাইভ সায়েন্স এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, মিষ্টি জাতীয় খবারের প্রতি মানুষের যে আকর্ষণ তা মস্তিষ্কের কারণেই ঘটে থাকে। পূর্বপুরুষদের মিষ্টি প্রীতি চিরস্থায়ীভাবে মস্তিষ্কে রক্ষিত আছে।

প্রসঙ্গত, প্রাগৈতিহাসিক মানুষ ফলমূল সংগ্রহ করে খেত। গ্লুকোজ সমৃদ্ধ কিংবা মিষ্টি জাতীয় খাবার শক্তির ভালো উৎস ছিল। সেসময় যেসব খাদ্যের স্বাদ খারাপ ছিল তাদের বিপজ্জনক এবং বিষাক্ত বলে মনে করা হতো। এছাড়া প্রাচীন মানব যেহেতু খাবারের স্বাদ কেমন হবে তা আগে থেকেই নির্ধারণ করতে পারতো না, সেহেতু মিষ্টি জাতীয় খাবারকেই তারা নিরাপদ খাবার বলে মনে করতে শুরু করে।

পরবর্তীকালে ধীরে ধীরে মস্তিষ্কের বিকাশ ঘটলেও পূর্বের সেই স্মৃতি মস্তিষ্ক থেকে হারিয়ে যায়নি।

এছাড়া মস্তিষ্কে থাকা রাসায়নিক পদার্থের কারণেও মিষ্টি জাতীয় খাবারের প্রতি মানুষ বেশি আকৃষ্ট হয়। মিষ্টি খাওয়ার সময় মস্তিষ্কের রিওয়ার্ড সিস্টেম যা মেসোলিম্বিক ডোপামিন সিস্টেম নামে পরিচিত তা কার্যকর হয়ে উঠে। ডোপামিন মস্তিষ্কে অবস্থিত একটি হরমোন। নিউরন থেকে এই হরমোন উৎপন্ন হয়। মানবদেহে আনন্দ কিংবা খুশীভাব সৃষ্টির জন্য ডোপামিন দায়ী। এই ডোপামিনের সংকেত দেয়ার ফলেই মিষ্টি জাতীয় খাবারকে ইতিবাচক হিসেবে গ্রহণ করে মস্তিষ্ক।

এই কারণেই কেক, চকলেট, আইসক্রিম থেকে শুরু করে বিভিন্ন মিষ্টি জাতীয় খাবার মানুষ একবার খাওয়ার পরেও বার বার খেতে চায়।

যদিও মিষ্টির প্রতি আমাদের মস্তিষ্কের দুর্বলতা রয়েছে। কিন্তু এধরনের খাবার মানুষের শরীরের জন্য ক্ষতিকর।  অতিরিক্ত মিষ্টি খাওয়ার ফলে মোটা হয়ে যাওয়া থেকে শুরু করে ডায়াবেটিস, হৃদরোগসহ বিভিন্ন রোগ হতে পারে। এছাড়া গবেষণায় পাওয়া গেছে, মিষ্টি জাতীয় খাবার মানুষের বার্ধক্যকেও ত্বরান্বিত করে। সুতরাং এধরনের খাবার খাওয়ার সময় সংযত হয়ে খাওয়াই উচিত।

বাংলা/এফকে

সংশ্লিষ্ট বিষয়

চিনি মস্তিষ্ক

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0215 seconds.