• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৮ নভেম্বর ২০১৯ ২২:১৩:১৪
  • ০৮ নভেম্বর ২০১৯ ২২:২৪:১৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

অন্ধ, তবুও আন্দোলনের মিছিলে হেঁটেছেন শারমিন

ছবি : সংগৃহীত

চোখে তিনি দেখতে পান না। তাকে চলতে হয় মনের আলোয় আর অন্যের সহযোগিতায়। তবু জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের চলমান আন্দোলনে আছেন শারমিন। সরকার ও রাজনীতি বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের এই শিক্ষার্থীর আন্দোলনে অংশ নেয়ার ছবি ও খবর ভাইরাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

শারমিন বলেন, ‘শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার খবর শুনে আর বসে থাকতে পারিনি। আমার পরিবার থেকেও কোনো বাধা নেই। আসলে আমি এমন একটি পরিবারে জন্ম নিয়েছি, যারা সব সময় অন্যায়ের প্রতিবাদ করে এসেছে।’

অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করায় হল, ক্যান্টিন, ডাইনিং, ক্যাম্পাসের অন্য খাবার দোকান সব বন্ধ। তবু বাড়ি যাননি শারমিন। মঙ্গলবার থেকে প্রতিদিনই অংশ নিচ্ছেন আন্দোলনে। অন্য ছাত্রীদের সঙ্গে কষ্ট করে রাত যাপন করছেন শিক্ষকদের বাসায়। শুক্রবারও আন্দোলনের কর্মসূচিতে হাজির থাকতে দেখা গেছে শারমিনকে।

শারমিন বলেন, ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন আমাদের দীর্ঘ আড়াই মাসের। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা  শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে হামলা করার পর থেকেই আমরা সাধারণ শিক্ষার্থীরা একত্রিত হয়ে আন্দোলনকে আরো জোরালো করি। আমার প্রতিবন্ধকতা আছে। তারপরও আমাকে আন্দোলনে আসতে হয়েছে। আমার চোখে আলো নেই তবে আমার বিবেক এ ঘটনায় আর আমাকে বসে থাকতে দেয়নি। জাগ্রত রয়েছে।’

শারমিন বলেন, ‘দুর্নীতির বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমরা আন্দোলন চালিয়ে যাব। এই আন্দোলন ক্যাম্পাসকে বাঁচানোর আন্দোলন। আমাদের যে অনৈতিকভাবে হল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এই সিদ্ধান্ত আমরা মানি না। অনতিবিলম্বে আমাদের হলগুলো খুলে দিতে হবে।’

আন্দোলনে অংশগ্রহণকারী রসায়ন বিভাগের ছাত্রী তাজরিন ইসলাম শারমিন সম্পর্কে বলেন, ‘আমরা আসলে শারমিনকে নিয়ে গর্বিত। ওর চোখে আলো নেই, কিন্তু সে আমাদের আলো দেখাচ্ছে। ওর আন্দোলনে অংশ নেয়া আমাদের শক্তি যোগাচ্ছে। দিনরাত ও আমাদের সঙ্গে থাকতেছে।’

বাংলা/এমএইচ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0202 seconds.