• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৮ নভেম্বর ২০১৯ ১৯:৪৯:১৬
  • ০৮ নভেম্বর ২০১৯ ২০:০২:৩৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

নিজ ক্ষেপণাস্ত্র চলে গেলো রাশিয়ার হাতে, আতঙ্কে ইসরায়েল

ইসরায়েলের অত্যাধুনিক বিমান প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্র। ছবি : ইসরায়েল টাইমস থেকে নেয়া

ইসরায়েলের অত্যাধুনিক বিমান প্রতিরক্ষা ক্ষেপণাস্ত্র রাশিয়ার হাতে চলে গেছে। আর ঘটনায় আতঙ্কের মধ্যে পড়েছে দেশটি। এটি ইসরায়েলের বিমান প্রতিরক্ষায় নিয়োজিত ডেভিড শ্লিং গোলন্দাজ বাহিনীর অন্তর্ভুক্ত। টাইমস ইসরায়েল টাইমস’র বরাত দিয়ে এমন খবর প্রকাশ করেছে পার্সটুডে।

ওই খবরে আরো বলা হয়, এই ক্ষেপণাস্ত্র হাতিয়ে নেয়ার মধ্য দিয়ে একে ঠেকানর মতো পাল্টা ব্যবস্থা হয়ত দ্রুত খুঁজে পাবে রাশিয়া। এমনকি পাল্টা এ ব্যবস্থা পরে অন্যদের কাছেও ছড়িয়ে পড়তে পারে।

রুশ নির্মিত সিরিয়ার রকেট ইসরায়েলের ভেতরে গত বছরের জুলাই মাসে ঢুকছে বলে সন্দেহে করে তা ঠেকানোর জন্য এ ধরণের দুটো ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হয়েছিল। কিন্তু কার্যত সিরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র ইসরায়েলে ঢোকে নি। সে সময়ে দেশটির বিমান বাহিনী তড়িঘড়ি একটি ক্ষেপণাস্ত্রকে নিজেরাই ধ্বংস করে দিতে পারলেও অপরটি অক্ষত অবস্থায় সিরিয়ার ভূখণ্ডে গিয়ে পড়ে।

এদিকে চীনা সংবাদ সংস্থা এসআইএনএ’র খবরে বলা হয়, সিরিয় বাহিনী এ ক্ষেপণাস্ত্রকে সংগ্রহ করে পরে তা রাশিয়ার কাছে হস্তান্তর করেছে। অতি সম্প্রতি এটি হস্তান্তর করা হয় বলেও ওই খবরে উল্লেখ করা হয়।

মধ্যম পাল্লার এই ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাটি ডেভিড শ্লিং’র সাথে যৌথ ভাবে তৈরি করেছে ইসরায়েলের কোম্পানি র‍্যাফেল অ্যাডভান্সড ডিফেন্স সিস্টেমস এবং মার্কিন রেথন। ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ঠেকানোর জন্য এটি মার্কিন প্যাট্রিয়ট ক্ষেপণাস্ত্রের বদলে ব্যবহার করা হচ্ছে। ২০১৭ সালে প্রথম এ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা পায় ইসরায়েলি বাহিনী। এ ছাড়াও মনে করা হয়, গত বছরের জুলাই মাসেই এ ক্ষেপণাস্ত্র প্রথম ব্যবহার করেছিল ইসরায়েল।

বাংলা/এনএস

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0218 seconds.