• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৫ নভেম্বর ২০১৯ ১৩:০৪:২২
  • ০৫ নভেম্বর ২০১৯ ১৩:০৪:২২
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

ইউরেনিয়াম উৎপাদন বাড়াচ্ছে ইরান

ছবি: সংগৃহীত

সমৃদ্ধ ইউরেনিয়াম উৎপাদন ১০ গুণ বাড়ানোর ঘোষণা করেছে ইরান। পশ্চিমাদের সাথে পারমাণবিক চুক্তি থেকে বিরত থাকার কারণে ইরান ইউরেনিয়াম উৎপাদন বাড়াবে বলে খবর প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা দি গার্ডিয়ান।

‘যেখানে ২মাস আগে মাত্র ৪৫০ গ্রাম ইউরেনিয়াম উৎপাদন হতো সেখানে এখন রোজ ৫ কেজি করে ইউরেনিয়াম উৎপাদিত হচ্ছে’ বলে মন্তব্য করেন, ইরানের পারমাণবিক শক্তি সংস্থার প্রধান আলী আকবর সালেহী। কাকতালীয় ভাবে, ৪০ বছর আগে একই দিনে ইরান মার্কিন দূতাবাস তাদের দখলে এনেছিল।

সালেহী আরো বলেন, ‘দুটি নতুন উন্নত সেন্ট্রিফিউজ প্রবর্তনের মাধ্যমে উৎপাদন বৃদ্ধি সম্ভব হয়েছিল, যার একটিতে এখনো পরীক্ষা করছে ইরান। এখন তারা ৬০ আইআর-৬ অ্যাডভান্সড সেন্ট্রিফিউজ পরিচালনা করছেন। যা পশ্চিমাদের সাথে করা চুক্তিকে লঙ্ঘন করে।’

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের মে মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পারমানবিক চুক্তি প্রত্যাখ্যান করেন এবং ইরানের উপর তাদের ‘জোরপ্রয়োগ নীতি’ পুনরায় চাপিয়ে দেন। যার ফলে পারমাণবিক চুক্তিটি অবমুক্ত করা হয়।

সালেহী আরো জানান, ইরানী প্রকৌশলীরা আইআর-৯ নামক প্রোটোটাইপটিতেও কাজ করছেন এবং বলেছিলেন যে এই চুক্তির আওতায় অনুমোদিত প্রথম প্রজন্মের আইআর-১ এর চেয়ে এর গতি ৫০ গুণ বেশি হবে।

ইরান সরকার জানিয়েছে, তারা এখন তাদের সমস্ত আইআর-১ সেন্ট্রিফিউজ সরিয়ে নিয়েছেন। তারা কেবলমাত্র উন্নত মডেলই ব্যবহার করছেন, যার ফলে উৎপাদনের পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে।

প্রসঙ্গত, সেন্ট্রিফিউজগুলোর পরিবর্তন থেকে এই ধারনা করা হচ্ছে, আগামী এক বছরের মধ্যে ইরান তাদের নিজস্ব পারমানবিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করে ফেলতে পারে। তবে, দেশটি এ ধরণের কোনো পদক্ষেপ নিবে না বলেই পশ্চিমা বিশেষজ্ঞদের ধারনা।

এদিকে, ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) তাদের সর্বশেষ পদক্ষেপে কী প্রতিক্রিয়া জানাবে তা এখনো পরিষ্কার নয়। তবে এখন পর্যন্ত ইইউ পুরো পারমাণবিক চুক্তিকে পর্যালোচনা করে দেখেনি বলে জানা গেছে।

ইইউ সোমবার একটি প্রাথমিক সতর্কবার্তা পাঠিয়ে ইরানকে জানায় পারমাণবিক চুক্তির পক্ষে তাদের সমর্থন এবং প্রতিশ্রুতি পূরণে তারা তেহরানের উপর নির্ভরশীল। জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাশ বলেন, ‘এই ঘোষণাটি অগ্রহণযোগ্য এবং এটি পুরো পারমাণবিক চুক্তিকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলছে।’

বাংলা/এসজে

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0201 seconds.