• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৯ অক্টোবর ২০১৯ ১৩:১৮:৫০
  • ২৯ অক্টোবর ২০১৯ ১৩:১৮:৫০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

ফ্রান্সে মসজিদে হামলা, আহত ২

ছবি : দ্য গার্ডিয়ান থেকে নেয়া

ফ্রান্সের দক্ষিণ-পশ্চিমের শহর বায়োননের একটি মসজিদে দু'জন মুসলিম ধর্মালম্বীকে গুলি করে আহত করার অভিযোগে ৮৪ বছর বয়স্ক এক স্থানীয় ফরাসিকে আটক করা হয়। অভিযুক্ত ক্লোড সিনকা (৮৪) নামের ওই হামলাকারী মেরিন-লে-পেন (ডানপন্থী রাজনৈতক দল)’র একজন ব্যর্থ নির্বাচনী প্রার্থী ছিলেন।

এছাড়াও ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে মসজিদটি পুড়িয়ে দেয়ার চেষ্টা করার অভিযোগও রয়েছে। ২৮ অক্টোবর, সোমবার এই হামলার ঘটনা ঘটে এবং ওই দিনই দেশটির পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। এমন খবর প্রকাশ করেছে দ্য গার্ডিয়ান।

পুলিশের ভাষ্য মতে, তিনি মসজিদটিতে আগুন দেয়ার উদ্দেশ্যে একটি অগ্নি সংযোগকারী বস্তু ছুড়ে মারেন। তখন মসজিদ থেকে বেরিয়ে আসা ২ জন ব্যক্তি তাতে বাধা দেয়ার চেষ্টা করলে তাদের গুলি করেন তিনি। তারপর তিনি ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। তবে পালানোর আগে তিনি একটি গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দিয়েছিলেন বলেও জানা গেছে। 

এই ঘটনার পর বায়োননের কাছে সেন্ট মার্টিন-ডি-সিগানেক্সে তার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পুলিশ সিনকার গাড়িতে একটি গ্যাস ক্যানিস্টার এবং একটি হ্যান্ডগান পেয়েছে।

পুলিশ জানায়, আহত দুই ব্যক্তির বয়স ৭৮ ও ৭৪ বছর। আহতদের মাঝে একজন বুকে গুরুতর আঘাত পেয়েছেন। ঘটনার পর পরই তাদের হাসপাতালে নেয়া হয় এবং বর্তমানে তারা বিপদমুক্ত।

পুলিশ আরো বলে, ‘তিনি তার স্বীকারোক্তি দিয়েছেন কিন্তু এই হামলার পেছনে উদ্দেশ্য এখনো স্পষ্ট নয়। তার কোনো পুলিশ রেকর্ড নেই এবং তিনি ফরাসী গোয়েন্দা সংস্থার নজরে ছিলেন না।’

ফ্রান্সে এর আগেও মসজিদ ভাঙচুরের ঘটনা দেখা গেছে। ২০১৫ সালের প্যারিসের জঙ্গী হামলায় ১৩০ জন মুসলমান নিহত হয়েছিল। এছাড়াও মার্চ মাসে নিউজিল্যান্ডের দুটি মসজিদে হামলায় হতাহতের সংখ্যাও অনেক।

স্থানীয় প্রসিকিউটররা জানান, সিনকা’র বিরুদ্ধে হত্যার চেষ্টা করার অভিযোগ আনা হয়েছে। ফরাসী রাষ্ট্রপতি এমানুয়েল ম্যাক্রো ‘বীভৎস হামলা’ বলে এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন এবং ফ্রান্সের মুসলিম জনগণকে রক্ষা করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

বাংলা/এসজে/এনএস

সংশ্লিষ্ট বিষয়

হামলা মসজিদ ফ্রান্স

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0197 seconds.