• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৭ অক্টোবর ২০১৯ ২১:৩৫:০০
  • ২৭ অক্টোবর ২০১৯ ২১:৩৫:০০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

ইরাকে সরকারবিরোধী বিক্ষোভে দুই দিনে নিহত ৬৭

ইরাকে সরকারবিরোধী বিক্ষোভের ফলে মাত্র দুই দিনে ৬৭ জন নিহত হন বলে জানা গেছে।  প্রধানমন্ত্রী আদেল আব্দুল মাহদির সরকারের দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানোর জন্য চলতি মাসের শুরুতে এই বিক্ষোভ শুরু হয়েছিল। মাঝখানে কিছুটা বিরতি দিয়ে শুক্রবার থেকে আবারো দ্বিতীয় দফার বিক্ষোভ শুরু হয়েছে।  

রবিবার রাজধানী বাগদাদের সেন্ট্রাল তাহরির স্কোয়ারে শতাধিক বিক্ষোভকারী সমবেত হন।  বিগত দুই দিনে ৬৭ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হওয়ার ঘটনার প্রতিবাদ জানান তারা।  বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনী এবং মিলিশিয়া গ্রুপের সঙ্গে সংঘর্ষের ফলে এই মর্মান্তিক মৃত্যুর ঘটনা ঘটে।

শুক্রবার থেকে শুরু হওয়া দ্বিতীয় দফার এই বিক্ষোভ হাজার হাজার বিক্ষোভকারী বাগদাদের সুরক্ষিত গ্রিন জোন এলাকায় যাওয়ার চেষ্টা করেন।  প্রসঙ্গত, এই এলাকায় বিদেশি দূতাবাস এবং গুরুত্বপূর্ণ সরকারি কার্যালয় রয়েছে।  নিরাপত্তা বাহিনী বিক্ষোভকারীদের হঠিয়ে দেয়ার জন্য কাঁদানে গ্যাস ব্যবহার করে।  রাতের বেলা নিরাপত্তা বাহিনীর ধাওয়া খেয়ে বিক্ষোভকারীরা তাহরির স্কোয়ারে ফিরে আসেন।  

তাহরির স্কোয়ারে খালি পায়ে বসে থাকা ১৯ বছর বয়সি বিক্ষোভকারী ফারেস মুখালেদ বলেন, ‘ আমি পরিবর্তন চাই। গ্রিন জোন এলাকায় যেসব দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তারা ঘুমিয়ে আছে, যারা আমাদের বিরুদ্ধে কাঁদানে গ্যাস এবং রাবার বুলেট ব্যবহার করছে আমি তাদের সবাইকে অপসারণ করতে চাই। ’   

এদিকে ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনী এবং চিকিৎসা কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, কাঁদানে গ্যাসের টিনের আঘাতে বাগদাদে ৪ জন বিক্ষোভকারী নিহত হন।  এছাড়া হিল্লায় ৭ জন নিহত হন।  ইরানি সমর্থিত বদর অর্গানাইজেশনের মিলিশিয়া গ্রুপের গুলিতে তাদের বেশিরভাগের মৃত্যু হয়।    

উল্লেখ্য, সরকারের দুর্নীতি এবং সরকারী দুর্বল পরিষেবার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানানোর জন্য ১ অক্টোবর হাজার হাজার ইরাকি রাস্তায় নেমে আসেন। সে সময় নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষে ১৪৯ জন বেসামরিক নাগরিক প্রাণ হারিয়েছিলেন।  সম্প্রতি ইরাকের জাতিসংঘ সহায়তা মিশন এক প্রতিবেদনে ১৪৯ জন নিরীহ নাগরিককে হত্যার অপরাধে ইরাক সরকারকে মানবাধিকার লংঘনের অভিযোগে অভিযুক্ত করে।  এমনকি ইরাক সরকারের নিজস্ব তদন্ত কমিটিতেও বিক্ষোভকারীদের উপর নিরাপত্তা বাহিনীর অত্যধিক বলপ্রয়োগের কথা বলা হয়েছে।

বাংলা/এফকে

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0217 seconds.