• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৪ অক্টোবর ২০১৯ ২২:৪৩:৫১
  • ২৪ অক্টোবর ২০১৯ ২২:৫০:৪৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে ইরাক সরকার : জাতিসংঘ

ছবি : সংগৃহীত

চলতি মাসের শুরুতে ইরাকে সংঘটিত বিক্ষোভে দেশটির নিরাপত্তা বাহিনী গুরুতর মানবাধিকার লঙ্ঘন করেছে বলে অভিযোগ করেছে ইরাকের জাতিসংঘ সহায়তা মিশন (ইউএনএএমআই)। সোমবার এক প্রতিবেদনে ইরাক সরকারের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ এনেছে সংস্থাটি।

ইরাকের জাতিসংঘ সহায়তা মিশন ১ থেকে ১৬ অক্টোবর দেশটির মানবাধিকার পর্যবেক্ষক, সাংবাদিক, সুশীল সমাজ, বিক্ষোভকারী এবং নিহতদের পরিবারের ১৪৫ জন সদস্যের সাক্ষাৎকার নেয়। এই সাক্ষাৎকারের ভিত্তিতে ওই প্রতিবেদনটি করা হয়।

যেসব সাংবাদিক বিক্ষোভের খবর করেছেন তারা ইউএনএএমআই’কে জানান, তাদের কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এছাড়া অনেক সাংবাদিকই মৃত্যুর হুমকিসহ বিভিন্ন হয়রানির শিকার হচ্ছেন।

মানবাধিকার কর্মীদের অভিযোগ, বিক্ষোভে অংশ না নেয়ার জন্য তাদের সতর্ক করে দেয়ার পাশাপাশি মৃত্যুর হুমকিও দেয়া হয়েছে।

ইউএনএএমআই এর প্রতিবেদনে বলা হয়, নিহত এবং আহতদের সংখ্যা থেকে সুস্পষ্ট ইঙ্গিত পাওয়া যায়, ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনী বাগদাদ এবং দেশটির অন্যান্য স্থানে সংঘটিত বিক্ষোভের সময় বিক্ষোভকারীদের প্রতি অত্যধিক বল প্রয়োগ করেছে। প্রসঙ্গত, সরকারের দুর্নীতিবিরোধী ওই বিক্ষোভে ইরাকি নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে ১৪৯ জন বিক্ষোভকারী নিহত হন।

বিক্ষোভকারীদের বিরুদ্ধে অত্যধিক বল প্রয়োগের প্রমাণ পেয়েছে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘ মিশন। সেসময় গণহারে গ্রেপ্তারের ঘটনা ঘটেছে বলেও উল্লেখ করা হয়। এমনকি আহত বিক্ষোভকারীদের প্রয়োজনীয় চিকিৎসা নিতেও দেয়নি নিরাপত্তা বাহিনী।

এদিকে বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, তাদের কাছে আসা ইরাকি সরকারের তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনেও ১৪৯ জনের মৃত্যুর জন্য নিরাপত্তা বাহিনীর অত্যধিক বল প্রয়োগের কথাই বলা হয়েছে। নিরাপত্তা বাহিনী বিক্ষোভকারীদের লক্ষ্য করে সরাসরি গুলি করেছে বলে এতে উল্লেখ করা হয়।

সরকারী তদন্ত কমিটি জানায়, নিহতদের শতকরা ৭০ ভাগের মাথা এবং বুকে গুলি করা হয়েছে। 
ইউএনএএমআই এর মানবাধিকার প্রধান ড্যানিয়েল বেল জানান, বিক্ষোভের সময় সহিংসতার ফলে যে প্রাণহানি এবং গুরুতর জখমের ঘটনা ঘটেছে তা দুঃখজনক ছিল। পাশাপাশি এই হতাহতের ঘটনা প্রতিরোধ করা যেত।

উল্লেখ্য, চলতি মাসের শুরুতে বেকারত্ব, দুর্বল সরকারি পরিসেবা এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে ফুঁসে উঠে সাধারণ ইরাকিরা। দলে দলে রাজপথে নেমে তারা সরকার বিরোধী বিক্ষোভ শুরু করে। এসময় নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে ১৪৯ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়।

বাংলা/এসজে/এফকে

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0286 seconds.