• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৩ অক্টোবর ২০১৯ ১৭:৫৩:৫৮
  • ২৩ অক্টোবর ২০১৯ ১৭:৫৩:৫৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

পারিবারিক কলহ ছাড়ছে না ব্রিটিশ রাজপরিবারকেও

উইলিয়াম ও হ্যারি। ছবি : সংগৃহীত

‘ব্রিটিশ রাজপরিবারের দুই ভাইয়ের সম্পর্ক মোটেও ভালো যাচ্ছে না। প্রিন্স উইলিয়াম এবং হ্যারির মতপার্থক্য যেন থামছেই না।’ এতদিন এমন খবর প্রচার হলেও এবার দুই প্রিন্সের সম্পর্কের ফাটলের কথা স্বীকার করেছেন স্বয়ং প্রিন্স হ্যারি।

তিনি বলেছেন, ‘উইলিয়ামের সাথে আমার দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছে। আমরা দু’জন এখন অনেকটাই দুই পথের মানুষ।’

আইটিভিকে সম্প্রতি দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব বলেন প্রিন্স হ্যারি। তবে প্রিন্স মনে করেন, ‘সম্পর্কের মধ্যে যেমন ভালো দিন আছে, তেমনই খারাপ সময়ও যায়। এটিকে মেনে নিয়েই চলতে হবে।’

কিছুদিন ধরে খবর চাউর হয়েছিল ব্রিটিশ রাজপরিবারের এই ভাঙনের পেছনে হাত রয়েছে প্রিন্স উইলিয়ামের স্ত্রী তথা ডাচেস অব কেমব্রিজ কেট মিডলটন এবং প্রিন্স হ্যারির স্ত্রী ডাচেস অফ সাসেক্স মেগান মার্কেল।

যদিও ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমে প্রচারিত এই খবরে সায় দেননি রাজপরিবারের অনুমোদিত চিত্রনির্মাতা নিক বুলেন। তিনি বলেছেন, ‘কেট এবং মেগানের মধ্যে কোনো ঝামেলা হয়নি।’

মেগান মার্কেলের সাথে সম্প্রতি সাউথ আফ্রিকা ট্যুরের সময় হ্যারি বলেন, ‘আমরা দুই ভাই, আমরা সর্বদা ভাই থাকব। হয়তো এই মুহূর্তে দু’জন দুই পথে রয়েছি কিন্তু আমি সর্বদা তার পাশে রয়েছি এবং আমি জানি সেও আমার পাশে আছে। আমি তাকে অনেক ভালোবাসি কিন্তু ব্যস্ততার কারণে আমাদের দু’জনের দেখা হয় না।’

যদিও এর আগে খবরে প্রকাশ হয়েছিল, মেগানের আগ্রাসী এবং অসংযত ব্যবহারই রাজপরিবারের ভাঙনের কারণ।

এ বিষয়ে নিকের মন্তব্য, ‘দুই সুন্দরী নারী। একজন ব্রিটিশ, অন্যজন আমেরিকান। একজন ব্রিটিশ সৌন্দর্যের প্রতীক, অন্যজন প্রাক্তন অভিনেত্রী। তাই, তাদের লড়াই নিয়ে মুখরোচক গল্প তৈরি সহজ। সত্যিটা কিন্তু অনেকটাই আলাদা।’

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0197 seconds.