• বিদেশ ডেস্ক
  • ২২ অক্টোবর ২০১৯ ১৫:৩৪:২১
  • ২২ অক্টোবর ২০১৯ ১৫:৩৪:২১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

কানাডায় আবার জাস্টিন ট্রুডোর সরকার

ছবি : সংগৃহীত

কানাডার ৪৩তম জাতীয় নির্বাচনে জয়ী হয়ে আবারো ক্ষমতায় বসছে প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডোর দল ‘লিবারেল পার্টি’। ফলে টানা দ্বিতীয়বারের মতো সরকার গঠন করতে যাচ্ছে তারা। তবে নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পাওয়ায় সংখ্যালঘু হিসেবে ক্ষমতায় যেতে হবে লিবারেল পার্টিকে।

নির্বাচনে ট্রুডোর লিবারেল পার্টি ১৫৭ আসনে জয়লাভ করেছে। মোট ৩৩৮টি আসনের নির্বাচনে সরকার গঠনের জন্য তার দলকে কমপক্ষে ১৭০টি আসনে জয়লাভ করতে হতো। আর মাত্র ১৩ আসনের জন্য লিবারেল পার্টি একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। ফলে দ্বিতীয় মেয়াদে ট্রুডোকে গুরুত্বপূর্ণ কোনো আইন পাস করতে বেশ বেগ পেতে হবে।

এই নির্বাচনে ট্রুডোর মূল প্রতিদ্বন্দ্বী ছিল কনজারভেটিভ পার্টির অ্যান্ড্রু শের। নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলে ধারণা করা হলেও প্রথম থেকেই এগিয়ে ছিল লিবারেল পার্টি। ভোটের ফলাফল দেখে জানা যায় লিবারেল পার্টির প্রতিদ্বন্দ্বী কনজারভেটিভ পার্টি পেয়েছে ১২১ আসন। গতবারের নির্বাচনে তারা ৯৫ আসনে জয়ী হয়েছিল।

নির্বাচনে জয়ের পর মন্ট্রিলে সমর্থকদের উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী ট্রুডো বলেন, ‘আপনারা এটা করে দেখিয়েছেন আমার বন্ধুরা। আপনাদের স্বাগত।’ যারা তাকে ভোট দিয়েছেন তাদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আমার ওপর আস্থা রাখার জন্য আপনাদের ধন্যবাদ।’

বিরোধী কনসারভেটিভ পার্টি ভোটের আগে ট্রুডোর বিরুদ্ধে বড় ধরনের দুটি কেলেঙ্কারির অভিযোগ আনে। ফলে নির্বাচনে ট্রুডোকে বেশ অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে।

চার বছর আগে সত্যিকারের পরিবর্তনের অঙ্গীকার নিয়ে বিশাল এক বিজয়ের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসেন জাস্টিন ট্রুডো।

২০১৫ সালে ট্রুডো প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণের সময় তার মন্ত্রিসভায় নারী-পুরুষের সমান অংশগ্রহণের কারণে বিশ্বের সংবাদ মাধ্যমে শিরোনাম হয়েছিলেন। যা তার দলের প্রধান গুরুত্বপূর্ণ লক্ষ্য বলে তিনি প্রমাণ করতে চেয়েছিলেন।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

কানাডা জাস্টিন ট্রুডো

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0189 seconds.