• বিনোদন ডেস্ক
  • ২০ অক্টোবর ২০১৯ ১৭:২৬:৫৭
  • ২০ অক্টোবর ২০১৯ ১৭:২৮:৩৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

রাজনৈতিক বোধ সম্পন্ন চলচ্চিত্র ‘মেরুদ্বন্দ্ব’

ছবি : সংগৃহীত

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘মেরুদ্বন্দ্ব’। ‘কোন অপরিচিত গল্প নয়’ টিজারে এমন কথাই উল্লেখ করা হয়েছে। তাহলে কি সেই পরিচিত গল্প? তা জানাতে গিয়ে নির্মাতা রিসান আহমেদ গল্পের সূত্র হিসেবে বললেন- কোটা সংস্কার আন্দোলনের সময় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সন্ত্রাসীদের হাতুরী পেটার ছবিটি এই সিনেমা নির্মাণের বীজ হিসেবে কাজ করেছে। কিন্তু গল্পের মূল ভাবটি নেয়া হয়েছে ‘মূল জর্জ অরওয়েল’ এর '১৯৮৪' গল্প থেকে।

স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘মেরুদ্বন্দ্ব’ নিয়ে ইতোমধ্যে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা। ক্যাম্পাসের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের গণঅনুদানে এই সিনেমা নির্মিত হয়েছে। সিনেমার ব্যাপ্তি ৩৫ মিনিট। ডি সাইফের গল্পে সিনেমাটির চিত্রনাট্য ও পরিচালনা করেছেন রিসান আহমেদ। আগামী ২২ অক্টোবর জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সিনেমাটির প্রদর্শনের দিন নির্ধারন করা হয়েছে।

সিনেমাটি সম্পর্কে রিসান বলেন, ‘এটাকে আমরা রাজনৈতিক বোধসম্পন্ন চলচ্চিত্র বলতেই স্বাচ্ছন্দবোধ করবো। বিগত একটা৷ লম্বা সময় ধরেই আমাদের কথা বলার উপর, আমাদের ভাবনা প্রকাশের উপর যেই হস্তক্ষেপ চালানো হয়েছে সেখান থেকে বের হয়ে আমরা আমাদের সময় নিয়ে যা ভাবি, যা দেখি তাই এই সিনেমায় দেখানোর চেষ্টা করেছি। চলচ্চিত্রটি আমরা উৎসর্গ করেছি 'সেই' রাষ্ট্রকে যারা আমাদের কেবলমাত্র একদলা মাংসপিণ্ড হিসেবে বিবেচনা করতে চায়। জানগণ 'যার' কাছে কেবলই শোষণের বস্তু।’

সিনেমার প্রচারণার জন্য ক্যাম্পাসে পোস্টার লাগানো হয়েছিলো। কিন্তু সেইসব পোস্টার কে বা কারা ছিড়ে ফেলেছে। এনিয়েও চলছে আলোচনা সমালোচনা। অনেকেই ছেড়া পোস্টারের ছবি দিয়ে নিন্দা জানাচ্ছেন।

এ প্রসঙ্গে নির্মাতা রিসান বলেন, ‘পোস্টার কারা ছিড়ে ফেলেছে সেটা আমরা জানতে পারিনি। গত বছর কোটা আন্দোলনের সময় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তরিকুলের মেরুদণ্ডে হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করছেন কিছু সন্ত্রাসীরা। ওই যেই ছবিটা ওইটা থেকেই আমাদের সিনেমার বীজটা বোনা হয়। যেহেতু আমাদের সিনেমায় এরকম কথাই বলতে চেয়েছি আমরা তাই যারা ওইরকম সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডকে সমর্থন বা শক্তির যোগান, যারা ওই ধরনের কর্মকাণ্ড করে বেড়ায় তারাই পোস্টার ছিড়তে পারেন। এছাড়া অন্য কারো সিনেমার পোস্টার ছেড়ার পেছনে কোনো কারণ দেখতে পাই না আমরা।’

সংশ্লিষ্ট বিষয়

সিনেমা মেরুদ্বন্দ্ব

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0213 seconds.