• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১৯ অক্টোবর ২০১৯ ২১:২৩:২৩
  • ১৯ অক্টোবর ২০১৯ ২১:২৩:২৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

গাল্লিবয় রানার দায়িত্ব নিলেন প্রধানমন্ত্রী

ছবি : সংগৃহীত

সাদ আল ফারাবীগলি থেকে গানের রাজপুত্র বনে যাওয়া খুদে গায়ক রানা মৃধা ও তার আবিষ্কারক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র তবীব মাহমুদকে অত্যাধুনিক ভিডিও ক্যামেরা উপহার দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পাশাপাশি রানার পড়াশোনার খরচও বহন করা হবে সরকারের পক্ষ থেকে।

এমনটাই জানালেন আইসিটি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। ‘ডিজিটাল ডিভাইস ও ইনোভেশন এক্সপো’তে এই তথ্য জানান তিনি। ১৬ অক্টোবরের সেই আয়োজনে প্রথমবারের মতো কনসার্টেও অংশ নেন বাংলা হিপহপ গানের নতুন এ জুটি।

প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, ‘ওদের প্রথম গানটি দেখে আমি তবীবকে প্রশ্ন করি, এটি সাদাকালো কেন? ওর উত্তর ছিল, তার কাছে যে ক্যামেরা ছিল এর রেজ্যুলেশন এতটাই কম যে, ভিডিওটির কোয়ালিটি খারাপ হয়ে গিয়েছিল। তাই সাদাকালো করে দিতে হয়েছে। তবে আমি বলব, এরপর থেকে তাদের গানের কোয়ালিটি আরও ভালো হবে। অল্প দিনের মধ্যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে আমরা একটি অত্যাধুনিক ক্যামেরা রানা ও তবীবকে উপহার দেবো।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমি নিশ্চিত করে বলতে চাই, রানার মতো আর কোনও পথশিশু পথে যেন না থাকে, এজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কাজ করছেন। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে রানার পড়াশোনার সব খরচ আমরা বহন করব। ওর যা লাগে, সবকিছু আমরা দেখব।’

উল্লেখ্য, ‘গাল্লিবয়’ রানার উত্থান যেন রূপকথার রাজকুমারের মতোই। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় ঘুরে বেড়ানো আর দশটা পথশিশুর মতোই ছিল রানার জীবন। থাকে ঢাকার কামরাঙ্গীরচর এলাকায়। তবে ক্যাম্পাস এলাকাতেই সারাদিন ঘুরে বেড়াতে দেখা যেতো তাকে। ছোট্ট এই শিশুটি দারুণ র‌্যাপ গান গায়। ক্যাম্পাসে ঘুরে ঘুরে গান শোনানোর বিনিময়ে ২-৫ টাকা চেয়ে নেয় মানুষের কাছ থেকে। এটাই ছিল রানার পরিচিতি।

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0290 seconds.