• ১৫ অক্টোবর ২০১৯ ১০:৩৯:১২
  • ১৫ অক্টোবর ২০১৯ ১০:৩৯:১২
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

‘অর্থনীতিতে নোবেল’ বলে আসলে কিছু নেই

ছবি : সংগৃহীত


শাকিল রিয়াজ


‘অর্থনীতিতে নোবেল’ বলে আসলে কিছু নেই। আমরা যখন বলি অমুক অর্থনীতিতে নোবেল পেয়েছেন তখন ভুল বলি। পুরস্কারটির অফিসিয়াল নাম ‘দ্য সুইডিশ রিক্সব্যাংক প্রাইজ ইন ইকোনোমিক সায়েন্স ইন মেমোরি অব আলফ্রেড নোবেল’। বাংলায় বলা যায়— আলফ্রেড নোবেল স্মরণে অর্থনীতি বিজ্ঞানে সুইডিশ কেন্দ্রীয় ব্যাংক পুরস্কার। 

নিজের নামে পুরস্কার প্রদান সংক্রান্ত যে উইল ১৮৯৫ সালে লিখে গিয়েছিলেন আলফ্রেড নোবেল, সেখানে অর্থনীতির উল্লেখ ছিল না। সুইডেনের জাতীয় ব্যাংকের ৩০০ বছর পূর্তি উপলক্ষে ১৯৬৮ সালে এই পুরষ্কারটির প্রবর্তন করেছিল ব্যাংকটি। প্রথমবার এই পুরস্কার দেয়া হয় ১৯৬৯ সালে। 

অন্যদিকে পদার্থ, রসায়ন, চিকিৎসা, সাহিত্য ও শান্তি — এই পাঁচ ক্যাটাগরিতে নোবেল দেয়া হচ্ছে ১৯০১ সাল থেকে। নোবেল শুধু এই পাঁচ ক্যাটাগরিতে পুরস্কার প্রদানের জন্য উইল করে গিয়েছিলেন।

পরবর্তীতে রিক্সব্যাংকের সঙ্গে নোবেল একাডেমি একটি চুক্তি করে। পুরষ্কারটির সঙ্গে ‘আলফ্রেড নোবেল স্মরণে’ কথাটি সংযুক্ত করা হয়। 

বলা হয়, অক্টোবরের ‘নোবেল সপ্তাহ’র শেষ পুরষ্কার হিসেবে এই পুরষ্কারটির প্রাপকের নাম ঘোষণা করা হবে। চুক্তিতে এটাও অন্তর্ভুক্ত ছিল যে, নোবেল কর্তৃপক্ষ নয় বরং পুরস্কারটির টাকা ব্যাংকটিকেই বহন করে যেতে হবে। আর অর্থমূল্য হতে হবে নোবেল পুরস্কারের সমান। 

এভাবেই সুইডিশ কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পুরষ্কারটি নোবেলের নামের সঙ্গে যুক্ত হয়। সুইডেনের সরকার, নোবেল কমিটি, মিডিয়া বা অন্য কেউ কখনো এই পুরষ্কারটিকে নোবেল পুরস্কার বলে না।

নোবেল পুরষ্কার না হলেও এটিকে অর্থবিজ্ঞানের সর্বোচ্চ সম্মানজনক পুরস্কার বলে গণ্য করা হয়। ‘নোবেল স্মরণে’ সংযুক্ত হবার পর অর্থমূল্য বা গুরুত্বের দিক থেকে সমপর্যায়ের হলেও ‘নোবেল পুরস্কার’ বলা বারণ। কেউ বললে সেটা ভুল বলা হবে। অথচ আমরা সবাই এই ভুল করে যাচ্ছি। খেয়াল করে দেখুন, পুরস্কারটির ঘোষণা, প্রেস রিলিজ, ওয়েব সাইট, পাশ্চাত্য মিডিয়া, সনদপত্র বা মেডেলের কোথাও ‘অর্থনীতিতে নোবেল’ কথার উল্লেখ নেই।

এর আগে আরেক বাঙালি অর্থনীতিক অমর্ত্য সেন পেয়েছিলেন নোবেল স্মরণে রিক্সব্যাংক পুরস্কার। এবার পেলেন আরেক বাঙালি অভিজিৎ ব্যানার্জী। তিনি পুরষ্কারটি তাঁর ফরাসি স্ত্রী এস্তার দুফলোর সঙ্গে ভাগাভাগি করে পেয়েছেন। দুফলোর নাম গত বছরও শর্ট লিস্টে ছিল।

অভিজিৎ-দুফলো দম্পতিকে শ্রদ্ধা ও শুভেচ্ছা।

১৪ অক্টোবর, ২০১৯; স্টকহোম, সুইডেন

বাংলা/এসএ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0202 seconds.