• বিনোদন ডেস্ক
  • ১৪ অক্টোবর ২০১৯ ২২:২৩:৩১
  • ১৪ অক্টোবর ২০১৯ ২২:২৩:৩১
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

এফডিসিতে লাঞ্ছিত মৌসুমী

মৌসুমী। ছবি : সংগৃহীত

আগামী ২৫ অক্টোবর বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন। নির্বাচন নিয়ে রয়েছে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ। এবার সভাপতি পদে মিশা সওদাগরের বিপরীতে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মৌসুমী। আজ বিকালে বিএফডিসিতে খল অভিনেতা ড্যানিরাজের হাতে লাঞ্ছিত হন মৌসুমী। ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিএফডিসিতে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার ইলিয়াস কাঞ্চন তাৎক্ষণিকভাবে প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরু, শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগর ও সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খানকে নিয়ে আলোচনায় বসেন। সেখানে ড্যানিরাজ কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা চেয়েছেন বলে জানা যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী জানান বিকেলে মৌসুমীকে শুভেচ্ছা জানাতে শিল্পী সমিতিতে আসেন মহিলা লীগের কয়েকজন নেতা-কর্মী। এসময় শিল্পী সমিতিতে প্রবেশ নিয়ে ড্যানিরাজের সঙ্গে হট্টগোল বাঁধে। একপর্যায়ে তিনি মৌসুমীকে ধাক্কা দেন বলে অভিযোগ ওঠে। বিষয়টি নিয়ে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এসময় ঘটনা স্থলে মিশা সওদাগর, জয়সহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে মৌসুমী বলেন, ‘প্রচারণার জন্য এফডিসিতে ছিলাম। আমাকে শুভ কামনা জানাতে এক বড় আপা এবং কয়েকজন ভক্ত ফুল নিয়ে এফডিসিতে আসেন। তারা সমিতিতে আমার সঙ্গে সেলফি তুলে চলে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। ঠিক ওই সময় ড্যানিরাজ আমার সঙ্গে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করেন। ভক্তদের সঙ্গে বাজে ব্যবহার করেন। আমার কাছে জানতে চান- আমি কে?’

মৌসুমী বলেন, ‘আসলে তারা চাইছে একটা ঝামেলা করতে, যেন নির্বাচন বানচাল হয়ে যায়। তারা চায় আমি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়াই।’

গত ৫ অক্টোবর ২০১৯-২১ মেয়াদের শিল্পী সমিতির আসন্ন নির্বাচনের খসড়া তালিকা প্রকাশ করা হয়। তালিকা থেকে জানা যায়, সভাপতি পদে লড়াই করছেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী ও খলনায়ক মিশা সওদাগর। সহ-সভাপতির দুটি পদে প্রার্থী হয়েছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল, রুবেল ও নানা শাহ। সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খানের প্রতিদ্বন্দ্বী ইলিয়াস কোবরা। সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে লড়ছেন আরমান ও সাংকো পাঞ্জা। সাংগঠনিক সম্পাদক পদে অভিনেতা সুব্রত’র বিপরীতে কোনো প্রার্থী নেই। আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে লড়ছেন নূর মোহাম্মদ খালেদ আহমেদ ও চিত্রনায়ক ইমন। দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক পদে একাই রয়েছেন জ্যাকি আলমগীর। সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক পদে লড়বেন জাকির হোসেন ও ডন। কোষাধ্যক্ষ পদে অভিনেতা ফরহাদের কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী নেই। অর্থাৎ সুব্রত জ্যাকি আলমগীর এবং ফরহাদ বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

এবারের নির্বাচনে কার্যকরী পরিষদ সদস্যের ১১টি পদের জন্য প্রার্থী হয়েছেন ১৪ জন। তারা হলেন— অঞ্জনা সুলতানা, রোজিনা, অরুণা বিশ্বাস, আলীরাজ, আফজাল শরীফ, বাপ্পারাজ, রঞ্জিতা, আসিফ ইকবাল, আলেকজান্ডার বো, জেসমিন, জয় চৌধুরী, নাসরিন, মারুফ আকিব ও শামীম খান (চিকন আলী)।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

এফডিসি মৌসুমী

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0219 seconds.