• ০৯ অক্টোবর ২০১৯ ২৩:১৫:৪০
  • ০৯ অক্টোবর ২০১৯ ২৩:১৫:৪০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

রাবি প্রশাসনের অপসারণ দাবিতে শিক্ষকদের আন্দোলন অব্যাহত

ছবি : বাংলা

রাবি প্রতিনিধি :

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে শিক্ষক নিয়োগে চাকরি প্রত্যাশী নুরুল হুদার স্ত্রী সাদিয়ার সঙ্গে উপ-উপাচার্য অধ্যাপক চৌধুরী মো. জাকারিয়ার দর-কষাকষির ফোনালাপ ফাঁস হয় গত ৩০ সেপ্টেম্বর। সেই নিয়োগে উপ-উপাচার্যের জামাতা ও এক আওয়ামী লীগ নেতার মেয়ে নিয়োগ পেলেও প্রধানমন্ত্রী স্বর্ণপদক পাওয়া নুরুল হুদা নিয়োগ পাননি।

এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ‘স্বাধীনতাবিরোধী ও দুর্নীতিবাজ’ আখ্যা দিয়ে অপসারণের দাবিতে ৩ অক্টোবর ধারাবাহিক আন্দোলনের ঘোষণা দেয় দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষক সমাজ।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে আজ বুধবার অধ্যাপক জাকারিয়ার জামাতাকে শিক্ষক নিয়োগ দেয়া, নিয়োগে দুর্নীতি ও অনিয়মের তদন্ত এবং প্রশাসনের অপসারণের দাবিতে মৌন মিছিল ও সমাবেশ করেছে ‘দুর্নীতিবিরোধী শিক্ষক সমাজ’। এসময় দুর্নীতিবিরোধী লেখা সম্বলিত প্ল্যাকার্ড হাতে অংশ নেন শিক্ষকরা। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের সামনে সমাবেশে মিলিত হন তারা।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে নিয়োগে আইন বিভাগের সভাপতি জড়িত বলে উপ-উপাচার্য পাল্টা অভিযোগ করেন। দাবি করেন, ফোনালাপে যে টাকার বিষয়ে কথা হয়েছিল, সেই টাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মোহাম্মদ আব্দুল হান্নান নিয়েছিল। এবং যে একাউন্টে লেনদেন করা হয় সেটার স্বত্বাধিকারী তিনি।

অন্যদিকে সভাপতি অধ্যাপক হান্নানের দাবি, যে টাকা এসেছিল সেটা ব্যবসায়িক কাজে ধার করা হয়েছিল। এটা নিয়োগ সংক্রান্ত নয়। বরং তার বিরুদ্ধে অসত্য তথ্য ছড়ানো হচ্ছে। নিজে বাঁচতে উপ-উপাচার্য অন্যকে ফাঁসাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি।
 
এ বিষয়ে এখনো কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি অর্থদাতা। 

এদিকে ‘সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়’র ব্যানারে ১ অক্টোবর থেকে আন্দোলন করে আসছেন শিক্ষার্থীরা। আজও কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে মানববন্ধন পালন করেছেন তারা। পরে আবরার হত্যার বিচার ও বর্তমান প্রশাসনের দুর্নীতির তদন্ত দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন শিক্ষার্থীরা।

অন্যদিকে আবরার হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি ও বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদল। বুধবার বিকেল ৪ টার দিকে রুয়েট গেইটের সামনে মিছিলটি শুরু হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজলা গেইটে এসে শেষ হয়।

বাংলা/এএএ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0205 seconds.