• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৫ অক্টোবর ২০১৯ ১৪:৩৪:০৮
  • ০৫ অক্টোবর ২০১৯ ১৪:৩৪:০৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

শিশুকে যৌন হেনস্থা, নারীর ৭ বছরের জেল

ছবি : সংগৃহীত

এক কন্যা শিশুকে যৌন হেনস্থার দায়ে তেত্রিশ বছর বয়সী এক ভারতীয় নারীকে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। সাথে সাথে ওই নারীকে অর্থদণ্ডও দেয়া হয়েছে।

আদালত সূত্রের বরাতে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ‘এই সময়’এর খবরে বলা হয়েছে, লিভ-ইন পার্টনারের অনুপস্থিতিতে তার নাবালিকা মেয়েকে নিয়মিত যৌন হেনস্থা করতেন ওই নারী। যে কারণে এই সাজা দেয়া হয়েছে।

থানের মুমব্রার বাসিন্দা পকসো আইনে অভিযুক্ত ওই নারীর বিরুদ্ধে যাবতীয় অভিযোগ প্রমাণ সহকারে আদালতে পেশ করেন সরকারি কৌঁসুলি উজ্জ্বলা মোহলকর।

আদালতে মোহলকর জানান, ওই শিশুকন্যার মা কর্মসূত্রে সে সময় দুবাইয়ে থাকতেন। মেয়েকে স্বামীর কাছে রেখে গিয়েছিলেন। এদিকে স্ত্রীর অনুপস্থিতিতে স্বামী পরকীয়ায় জড়িয়ে পড়েন। প্রতিবেশী ওই নারীর সঙ্গে লিভ-ইন শুরু করেন স্বামী। এরমধ্যে কাজের প্রয়োজনে মাঝেমধ্যে ওই নারীর কাছে মেয়েকে রেখে বাইরে রে হতেন বাবা। লিভ-ইন পার্টনারের কাছে নিশ্চিন্তে মেয়েকে রেখে যেতেন। সেই সরল বিশ্বাসের সুযোগ নিয়ে শিশুকন্যার ওপর যৌন নির্যাতন করতেন ওই নারী।

২০১৫ সালের এপ্রিলের একদিন বাড়িতে ফিরে মেয়েকে যৌন হেনস্থার কথা প্রথম জানতে পারেন বাবা। মেয়ের শরীরের নানা জায়গায় ব্যথার কথা বাবাকে জানালে, কথা বলে তিনি বুঝতে পারেন মেয়ে যৌন নির্যাতনের শিকার। তার পরেই তিনি থানায় অভিযোগ জানালে, মুমব্রা থানার পুলিশ অভিযুক্ত নারীকে গ্রেপ্তার করে।

আইপিসির সংশ্লিষ্ট ধারা ছাড়াও পকসো আইনে নারীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে পুলিশ। অভিযোগপ্রমাণিত হওয়ায় জেলা বিচারক ডিজে মুরুমকর নারীকে দোষীসাব্যস্ত করে শাস্তি ঘোষণা করেন। সাত বছরের জেলের সঙ্গে তাকে ১০০০ টাকা জরিমানা করেছেন বিচারক।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

ভারত যৌন হেনস্থা

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0206 seconds.