• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৪ অক্টোবর ২০১৯ ১৮:৩১:৪৪
  • ০৪ অক্টোবর ২০১৯ ১৮:৩১:৪৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

দেশে বন্ধ হচ্ছে ই-সিগারেট

ছবি : সংগৃহীত

দেশে ই-সিগারেটের ব্যবহার বাড়ছে। এসব পণ্যের ব্যবহার ক্রমবর্ধমান হারে বাড়ছে। অতি সম্প্রতি সমপ্রতি ভারতে ই-সিগারেট নিষিদ্ধ করা হয়েছে। পরিস্থিতি ভয়াবহ আকার ধারণ করার আগেই বাংলাদেশও এসব পণ্যের উৎপাদন, আমদানি, বিক্রয় ও বিপণন নিষিদ্ধ করার দাবি জানিয়েছে তামাক বিরোধীরা।

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে ‘ইমার্জিং টোব্যাকো প্রোডাক্ট (ই-সিগারেট, এইচটিপি): বাংলাদেশ ও আন্তর্জাতিক পরিপ্রেক্ষিত ও আমাদের করণীয়’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় তারা এ দাবি জানান। স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক এমপির অসুস্থতাজনিত অনুপস্থিতিতে তার পক্ষে লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব শেখ ইউসুফ হারুন। 

বাংলাদেশে ই-সিগারেট নিষিদ্ধ করার বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, বিষয়টি আমাদের জন্য নতুন। এক সময় ই-সিগারেট জাতীয় পণ্যকে সিগারেটের নিরাপদ বিকল্প হিসেবে উপস্থাপন করা হলেও এখন বিভিন্ন গবেষণায় এর ক্ষতির বিষয়গুলো সামনে আসছে।

সুতরাং আমরা এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়ার চিন্তা করছি। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ইমার্জিং টোব্যাকো প্রোডাক্ট যেমন, ই-সিগারেট, ভ্যাপিং, হিটেড টোব্যাকো প্রোডাক্ট ইত্যাদি নতুন প্রজন্মের তামাকপণ্য ব্যবহার উদ্বেগজনক হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিষয়টি জনস্বাস্থ্যের জন্য খুবই উদ্বেগজনক। ই-সিগারেট বিষয়ক ইউএস সার্জন জেনারেল রিপোর্ট ২০১৬ এ ই-সিগারেটসহ নিকোটিনযুক্ত সকল পণ্যকে ‘অনিরাপদ’ বলে অভিহিত করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বর্তমানে দেশের মোট জনসংখ্যার ৪৯ শতাংশই তরুণ, যাদের বয়স ২৪ বছর বা এর নিচে।

ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ট হিসেবে বিবেচিত এই তরুণ জনগোষ্ঠীকে সঠিক পথে পরিচালনার ওপরই বাংলাদেশের কাঙ্ক্ষিত সমৃদ্ধি ও উন্নতি নির্ভর করছে। তামাকাসক্ত অসুস্থ তরুণ প্রজন্ম এসব লক্ষ্য পূরণে সাহায্য করবে না, বরং সমাজ ও অর্থনীতির জন্য বোঝা হয়ে দাঁড়াবে এবং ২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্য অর্জন করা কঠিন হয়ে পড়বে। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিবের অতিরিক্ত সচিব মো. হাবিবুর রহমান খান।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

ই-সিগারেট নিষিদ্ধ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0192 seconds.