• বিদেশ ডেস্ক
  • ০২ অক্টোবর ২০১৯ ১৩:০১:৪৯
  • ০২ অক্টোবর ২০১৯ ১৩:০১:৪৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

ইরানকে হারাতে আমেরিকা সাহায্য করলে ইসরায়েলকে স্বীকৃতি

সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমান ও মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ছবি : সংগৃহীত

ইরানকে পরাজিত করা এবং মধ্যপ্রাচ্যের নিয়ন্ত্রণ নেয়ার ব্যাপারে আমেরিকা সাহায্য করলে ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন সৌদি যুবরাজ মুহাম্মদ বিন সালমান। ২০১৭ সালের মে মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে রিয়াদে বৈঠকে এই প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন তিনি।

পিবিএস’র এক ডকুমেন্টারিতে এমন তথ্য উঠে আসে। ২৮ সেপ্টেম্বর, শনিবার পিবিএস’র ওই ডকুমেন্টারিটি সম্প্রচারিত হয়। এমন খবর প্রকাশ করেছে পার্সটুডে।

ডকুমেন্টারির প্রেজেন্টার মার্টিন স্মিথ জানান, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকে যুবরাজ বিন সালমান ইরানকে পরাজিত করার ব্যাপারে পূর্ণ সমর্থন চেয়েছিলেন। এর মাধ্যমে তিনি ইরানকে পরাজিত করে মধ্যপ্রাচ্যের প্রধান নায়কের ভূমিকায় অবতীর্ণ হওয়ার উচ্চ আকাঙ্ক্ষা ব্যক্ত করেন। মার্কিন সাহায্যের বিনিময়ে বিন সালমান প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ও তার জামাইকে বলেছিলেন, ইসরায়েল-ফিলিস্তিন নিয়ে তিনি কয়েক যুগের সমস্যা সমাধান করে দেবেন।

ওয়াশিংটন পোস্টের কলামিস্ট এবং সামরিক বিশ্লেষক ডেভিড ইগনাটিয়াস সালমানের সাক্ষাৎকার নেন।

যুবরাজ সালমানের উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি মধ্যপ্রাচ্যের অংশই মনে করি ইসরায়েলকে এবং ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দিতে ও তাদের সঙ্গে সম্পর্ক করতে আমি প্রস্তুত।’

সৌদি যুবরাজের এই বক্তব্যের পরই মার্কিন প্রশাসন অনেকটা নড়েচড়ে বসে এবং ট্রাম্পের উপদেষ্টা ও জামাই জারেড কুশনার বিষয়টি নিয়ে এগিয়ে যান। এরই ভিত্তিতে ডোনাল্ড ট্রাম্প রচনা করেন কথিত শান্তি চুক্তির খসড়া ‘ডিল অব দা সেঞ্চুরি’।

বাংলা/এনএস

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0210 seconds.