• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৫:৪৯:২৮
  • ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ২২:২৯:১৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

ঢাকায় ক্যাসিনো : মেননসহ ৫ জনকে নোটিশ

ছবি : সংগৃহীত

আলোচিত-সমালোচিত ক্যাসিনো ইস্যুতে সাবেক মন্ত্রী রাশেদ খান মেননসহ সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে। বাকীরা হলেন- হুইপ শামসুল হক চৌধুরী, পর্যটন সচিব মহিবুল হক, স্বরাষ্ট্র সচিবসহ সংশ্লিষ্টদেরকে নোটিশের অনুলিপি দেওয়া হয়েছে।

২৫ সেপ্টেম্বর, বুধবার জনস্বার্থে ডাকযোগে নোটিশটি পাঠান সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দ। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে নোটিশের জবাব না পেলে এ বিষয়ে একটি রিট আবেদন করা হবে বলেও জানিয়েছেন আইনজীবী।

নোটিশ পাঠানোর পর এই আইনজীবী বলেন, ‘ক্যাসিনো ইস্যুতে কারো কারো বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হলেও সাংসদ রাশেদ খান মেননসহ আরো অনেকের বিরুদ্ধেই কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে না।’ তাই জনস্বার্থে এ নোটিশ পাঠিয়েছেন তিনি।

তিনি জানান, ইয়ংমেন্স ক্লাবের গভর্নিং বডির চেয়াম্যান রাশেদ খান মেনন। কিন্তু তার বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে না। ফকিরাপুলের ইয়ংমেন্স ক্লাবে এক সংসদ সদস্যের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ, জুয়া ও ক্যাসিনো নিয়ে এক হুইপের বক্তব্য এবং বিদেশিদের জন্য ক্যাসিনোর ব্যবস্থা নিয়ে পর্যটন সচিবের মন্তব্য নিয়ে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

তিনি জানান, সংবিধানের একটি অনুচ্ছেদ ও পাবলিক গ্যাম্বলিং অ্যাক্ট-১৮৬৭ এর কথা উল্লেখ করা হয়েছে। তাই ২৪ ঘণ্টার মধ্যে এ নোটিশের জবাব না পেলে তিনি হাইকোর্টে রিট করবেন। সংবিধানের ১৮(২) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে- গণিকাবৃত্তি ও জুয়াখেলা নিরোধের জন্য রাষ্ট্র কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এছাড়া পাবলিক গ্যাম্বলিং অ্যাক্টের ৩, ৪ এবং ১৩ ধারা অনুসারে এটা শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

ইউনুছ আলী আকন্দ বলেন, সংবিধানের ১৮ (২) অনুচ্ছেদ অনুসারে সরকার জুয়া বন্ধে ব্যবস্থা নেবেন। কিন্তু সেটা এখনো হয়নি। ফলে সারাদেশে জুয়া, ক্যাসিনো প্রভাব বিস্তার করেছে। সে জন্য অপরাধ বেড়ে যাচ্ছে, মানি লন্ডারিং হচ্ছে। ইদানিং সরকার পদক্ষেপ নিয়েছে। যাদের কিছু কিছু সংশ্লিষ্টতা আছে তাদের গ্রেফতার করছে। কিন্তু যারা গডফাদার তাদের গ্রেপ্তার করছে না।

ইউনুছ আলী আকন্দ জানান, এ অবস্থায় লিগ্যাল নোটিশ দিয়েছি। বিষয়গুলো মিডিয়ায় দেখা যায় তা কতটুকু সত্য এগুলোর বিষয়ে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জানতে চেয়েছি। যদি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জবাব না পাই। তাহলে ধরে নেয়া হবে মিডিয়ায় যা এসেছে তা সত্য এবং ১০২ অনুচ্ছেদ অনুসারে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করবো।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

ক্যাসিনো রাশেদ খান মেনন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0219 seconds.