• বাংলা ডেস্ক
  • ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:২৫:০৪
  • ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১০:০১:১৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

ক্লাবে ‘ক্যাসিনো’ চলে, আগেই জানতো পুলিশ

মতিঝিল থানার ওসি ওমর ফারুক। ছবি : সংগৃহীত

মোহামেডান ক্লাবে ‘অবৈধ ক্যাসিনো’ চলার কথা জানত ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)। ১৪ মাস আগে মোহামেডান ক্লাবের সভাপতিকে দেয়া মতিঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ ওমর ফারুকের এক চিঠিতে ক্যাসিনো থাকার বিষয়টি যে পুলিশ জানে তা নিশ্চিত হওয়া যায়। প্রথম আলো’র এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, শুধু মোহামেডান ক্লাব নয় মতিঝিলের অন্তত ছয়টি ক্লাবে কয়েক বছর ধরে ক্যাসিনো চলার তথ্য জানার পরও পুলিশের পক্ষ থেকে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

গত বছরের ১০ জুলাই মতিঝিল থানার ওসি ওমর ফারুক মোহামেডান ক্লাবের সভাপতিকে চিঠি দিয়ে জানিয়েছিলেন, ‘মোহামেডান ক্লাবে ক্যাসিনো নামক খেলা পরিচালিত হচ্ছে। ক্যাসিনো নামক খেলা পরিচালনা করার জন্য যে সকল বৈধ কাগজপত্র আছে, তা তদন্তের প্রয়োজনে জরুরি ভিত্তিতে থানায় দেওয়ার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে।’

এর আগে শনিবার ওসি ওমর ফারুক দাবি করেন, মতিঝিলের ক্লাবগুলোয় ক্যাসিনো চলার কথা আগে তিনি মোটেও জানতেন না। ক্যাসিনোর সম্পর্কে আগে তার কোনো ধারণাই ছিল না। র‍্যাব যখন গত সপ্তাহে অভিযান চালিয়ে দুটি ক্লাব থেকে ক্যাসিনো বোর্ড উদ্ধার করে, তখন এই বিষয়টি তিনি জানান।

আজ রবিবার ওই চিঠির বিষয়ে জানতে চাইলে ওসি ফারুক বলেন, ‘হ্যাঁ, আমি ক্লাবগুলোকে গত বছর চিঠি দিয়েছিলাম। তবে ক্যাসিনো চলার তথ্য আমি জানতাম না। তখন ক্লাবে জুয়া খেলা বন্ধ করেছিলাম।’

র‍্যাব গত সপ্তাহে মতিঝিল থানার পেছনে ওয়ান্ডারার্স ও ইয়ংমেনস ক্লাবে অভিযান চালিয়ে ক্যাসিনো বোর্ড উদ্ধার করে। ক্লাবে পাওয়া যায় মাদকদ্রব্য। এ ঘটনায় র‍্যাবের পক্ষ থেকে মতিঝিল থানায় মামলাও দায়ের করা হয়। আর রবিবার মতিঝিলের মোহামেডান, ভিক্টোরিয়া, আরামবাগ ও দিলকুশা ক্লাবে অভিযান চালিয়ে ক্যাসিনোর বোর্ডসহ বিভিন্ন সরঞ্জামাদি উদ্ধার করে পুলিশ।

ওয়ান্ডারার্স ও ফকিরাপুল ইয়ংমেনসে অভিযান চালিয়ে সিলগালা করে দেওয়ার পর মতিঝিলের বাকি ক্লাবগুলোতে তালা মেরে দেয় ক্লাব কর্তৃপক্ষ। এরপর ওই সব ক্লাবগুলোর সামনে অবস্থান নেয় মতিঝিল থানা-পুলিশের সদস্যরা। আজ রবিবার দুপুর থেকে সন্ধ্যা নাগাদ মতিঝিল এলাকার মোহামেডান ক্লাব, ভিক্টোরিয়া ক্লাব, দিলকুশা ও আরামবাগ ক্লাবে অভিযান চালিয়ে ১২টি ক্যাসিনো বোর্ডসহ বিপুল পরিমাণ জুয়ার সামগ্রী উদ্ধার করেছে পুলিশ।

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0285 seconds.