• বিদেশ ডেস্ক
  • ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ২৩:০৭:৫৭
  • ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ২৩:০৭:৫৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

সিসি বিরোধী আন্দোলনের ডাক দিয়েছিলেন যিনি

মোহাম্মদ আলী। ছবি : সংগৃহীত

মিশরের প্রেসিডেন্ট আব্দেল ফাত্তাহ আল সিসির পদত্যাগের দাবিতে শুক্রবার দেশজুড়ে বিভিন্ন শহরে বিক্ষোভ করেছেন হাজার হাজার মিশরীয়। মিশরের মত একনায়কতান্ত্রিক দেশে এধরনের গণবিক্ষোভ বিরল ঘটনাই বলা যেতে পারে। অথচ এই অভাবনীয় ঘটনাটিই বিশ্ববাসী প্রত্যক্ষ করলো। আর এই অবিশ্বাস্য ঘটনার নেপথ্য নায়ক ছিলেন মোহাম্মদ আলী নামের একজন নির্বাসিত ব্যবসায়ী। 

বিল্ডিং ঠিকাদার এবং অভিনেতা মোহাম্মদ আলী প্রেসিডেন্ট সিসি এবং সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ এনে মিশরীয়দের কট্টর এই একনায়কের হাত থেকে দেশকে রক্ষার আবেদন জানিয়েছিলেন। 

মোহাম্মদ আলী মিশর থেকে পালিয়ে গিয়ে বর্তমানে স্পেনে নির্বাসিত জীবন যাপন করছেন। এর আগে তিনি মিশরে ১৫ বছর ধরে সামরিক বাহিনীর ঠিকাদারের কাজ করেছিলেন।

নির্বাসিত এই ব্যবসায়ী জানান, তিনি যেহেতু সামরিক বাহিনীর ঠিকাদার হিসেবে কাজ করেছেন সেহেতু সেখানকার দুর্নীতির বিষয়গুলো খুব কাছ থেকেই দেখেছেন।

স্পেন থেকেই তিনি অনলাইনে ভিডিও প্রকাশ করে এসব দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন। প্রেসিডেন্ট সিসি এবং সেনাবাহিনী কীভাবে জনগণের অর্থ আত্মসাৎ করে নিজেদের জন্য বিলাসবহুল প্রাসাদ,হোটেল এবং বাড়ি নির্মাণ করছেন তা মিশরীয়দের সামনে তুলে ধরেন তিনি।

মঙ্গলবার একটি ভিডিও প্রকাশ করেন আলী। এতে তিনি সিসিকে সম্বোধন করে বলেন, ‘আপনার সময় শেষ’, তিনি মিশরীয়দের শুক্রবার রাজপথে নেমে আসার আহ্বান জানান।

এদিকে গত সপ্তাহে এক যুব কনফারেন্সে আল সিসি জানান, তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির যেসব অভিযোগ উঠেছে তার সবই মিথ্যা এবং অপবাদ।  তার সম্মানহানির জন্য এগুলো ছড়ানো হচ্ছে।

২ সেপ্টেম্বর মোহাম্মদ আলী তার ফেসবুক পেজে প্রথম ভিডিও প্রকাশ করেন। এতে তিনি উল্লেখ করেন, মিশরের সরকারী কর্মকর্তা থেকে শুরু করে সেনাবাহিনী কোটি কোটি মিশরীয় পাউন্ড লুটপাট করছে। এই ভিডিওটি মিশরীয়দের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। এটি ১৭ লাখ মানুষ দেখেন।

এরপর থেকে মিশরজুড়ে মোহাম্মদ আলীর ডজনের পর ডজন কার্টুন তৈরি হতে থাকে। এতে দেখানো হয়, তিনি সিসির বিরুদ্ধে লড়াই করছেন। মিশরীয়রা তাকে উনিশ শতকে মিশর শাসন করা অটোমান কমান্ডার মোহাম্মদ আলীর সঙ্গে তুলনা করছেন।

এদিকে দোহা ইনস্টিটিউট ফর গ্রাজুয়েট স্টাডিজের মিডিয়া এবং সাংবাদিকতার চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আল মাসরি আল জাজিরাকে বলেন, ‘বর্তমানে মিশরে মোহাম্মদ আলীই সম্ভবত সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্যক্তি। লাখ লাখ মানুষ তার ভিডিও দেখছেন। তার সিসিবিরোধী ভিডিওগুলো ভাইরাল হচ্ছে।’

বাংলা/এফকে

 

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0237 seconds.