• বিদেশ ডেস্ক
  • ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১২:১৭:১৭
  • ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১২:১৭:১৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

রোহিঙ্গাদের ‘বাংলাদেশি’ই ভাবেন সু চি!

ফাইল ছবি

সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের সঙ্গে এক বৈঠকে রোহিঙ্গাদের ‘বাংলাদেশি’ হিসেবে উল্লেখ করেছিলেন মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সু চি। ২০১৩ সালে তিনি এমন মন্তব্য করেন বলে ক্যামেরনের স্মৃতিকথা ‘ফর দ্য রেকর্ডে’র বরাত দিয়ে জানিয়েছে জার্মান গণমাধ্যম ডয়েচে ভেলে।

মিয়ানমারের স্বাধীনতার পর ২০১২ সালে প্রথম কোনো ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে সে দেশ সফরে যান ডেভিড ক্যামেরন। সে সময় তার সাথে আলাপচারিতার সময় সু চি এ মন্তব্য করেন বলে ‘ফর দ্য রেকর্ড’এ উল্লেখ করেন ক্যামেরন। সু চির এমন অবস্থানে তখন তিনি যথেষ্ট বিরক্ত হন।

স্মৃতিকথায় ক্যামেরন উল্লেখ করেন, ‘আমি গণতন্ত্রপন্থি নেত্রী অং সান সু চির সঙ্গে বৈঠক করি। তিনি শিগগিরই প্রেসিডেন্ট পদে লড়াই করবেন। ১৫ বছরের গৃহবন্দিত্ব থেকে সত্যিকার গণতন্ত্রের পথে যাত্রা, তার এই দারুণ গল্প নিয়েই আমরা কথা বলেছি।’

তিনি আরো লিখেন, “কিন্তু ২০১৩ সালের অক্টোবরে সু চি যখন লন্ডন সফরে আসেন, সবার চোখ তখন রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর। বৌদ্ধ রাখাইনরা তাদের নিজ বাসস্থান থেকে তাড়িয়ে দিচ্ছিলো। ধর্ষণ, হত্যা, জাতিগত নিধনসহ অনেক কিছুই আমরা শুনতে পাচ্ছিলাম। আমি তাকে বললাম, ‘বিশ্ব সব দেখছে।’ তিনি উত্তর দিলেন, ‘তারা আসলে বার্মিজ নয়। তারা বাংলাদেশি।’ এরপর ২০১৫ সালে তিনি মিয়ানমারের রাষ্ট্রীয় নেতা হলেন, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে সহিংসতা চলতেই থাকলো।”

২০১০ সাল থেকে ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী ছিলেন ক্যামেরন। ২০১৬ সালে গণভোটে ব্রেক্সিটপন্থিদের জয়ের পর পদত্যাগ করেন তিনি।

বাংলা/এসএ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0197 seconds.