• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৩:১৩:৫৭
  • ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৩:৪৪:৩৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

মেয়েটিকে মুখ চেপে ক্লিনিকের ছাদে নিয়েছিলো ৩ জন

ছবি : প্রতীকী

পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় এক তরুণীকে পালাক্রমে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ভুক্তভোগী ওই তরুণী অপরের বাড়িতে কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। এ ঘটনায় রবিবার রাতে ওই তরুণী বাদী হয়ে মঠবাড়িয়া থানায় মামলা করেছেন।

মামলায় আসামি করা হয়েছে দাউদখালী গ্রামের সুমন খান, ইমরান হাওলাদার ও রাজু হাওলাদার নামের তিনজনকে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার দাউদখালী গ্রামের ওই গৃহকর্মী পাশের দেবত্র গ্রামের এক বাড়িতে গৃহকর্মীর কাজ করেন। সেখানে কাজে যাওয়ার পথে আসামিরা প্রায়ই তাকে উত্ত্যক্ত করতো। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে দেবত্র গ্রামের ওই বাড়িতে কাজ করতে যাচ্ছিলেন ওই তরুণী। এসময় আসামিরা মেয়েটিকে মুখ চেপে একটি ক্লিনিকের ছাদের উপর নিয়ে যায়। সেখানে ইমরান হাওলাদার প্রথমে তাকে ধর্ষণ করে। পরে পালাক্রমে ধর্ষণ করে সুমন খান ও রাজু হাওলাদার।

রাত দেড়টার দিকে স্থানীয় এক লোক মাছ ধরতে যাচ্ছিলেন। এসময় কথাবার্তার শব্দ শুনে ছাদে গিয়ে টর্চলাইটের আলো ফেললে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়। পরে তার সহায়তায় বাড়ি ফেরেন ওই তরুণী।

মঠবাড়িয়া থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আব্দুল্লাহ এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গৃহকর্মীকে গণধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে।

আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চললে উল্লেখ করে ওসি আরো জানান, মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য আজ সোমবার পিরোজপুর সিভিল সার্জন কার্যালয়ে পাঠানো হয়েছে।

বাংলা/এসএ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0233 seconds.