• বাংলা ডেস্ক
  • ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১২:৩৯:১২
  • ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১২:৩৯:১২
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

রেলে ক্লিনারের বেতন ৪ লাখ ২০ হাজার

ছবি : সংগৃহীত

রেলওয়ের কারিগরি প্রকল্পে ক্নিনারের বেতন মাসে চার লাখ বিশ হাজার করার প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া অফিস সহায়কের বেতন ধরা হয়েছে ৮৪ হাজার টাকা। রেল মন্ত্রণালয় থেকে পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো প্রকল্প প্রস্তাবনায় এমন বেতনের কথা বলা হয়।

এই প্রস্তাবকে ‘অস্বাভাবিক ও অগ্রহণযোগ্য’ বলে মন্তব্য করেছে পরিকল্পনা কমিশন। তবে ওই প্রস্তাবনায় ভুল হয়েছে বলে দাবি করে রেল মন্ত্রণালয়। যমুনা টেলিভিশনের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে আসে।

রেলকে ঢেলে সাজাতে বিভিন্ন সময় নেয়া হয়েছে নানা উদ্যোগ। তারই ধারাবাহিকতায় যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নে আবারো ২৫৬ কোটি টাকার কারিগরি সহায়তা প্রকল্প হাতে নেয় রেল মন্ত্রণালয়। এর আওতায় বাস্তবায়ন করা হবে ১১টি উপ-প্রকল্প। সম্প্রতি এই প্রকল্পটি অনুমোদনের জন্যে পরিকল্পনা কমিশনে পাঠানো হয়। প্রকল্প মুল্যায়ণ কমিটি, বেতন-ভাতা নির্ধারণে বড় ধরণের অনিয়ম পেলে তা আবারো রেল মন্ত্রণালয়ে ফেরত পাঠায়।

পরিকল্পনা কমিশনের ওই কার্যপত্রে দেখা যায়, প্রকল্পে ক্লিনারের বেতন ধরা হয় মাসে ৪ লাখ ২০ হাজার টাকা। আর অফিস সহায়কের বেতন প্রতি মাসে ৮৩ হাজার ৯৫০ টাকা। বিদেশী পরামর্শকদের বেতন মাসে গড়ে ১৬ থেকে ২৫ লাখ টাকা ধরা হয়েছে।

তবে প্রকল্পে বেতন-ভাতা নির্ধারণকে নিছক ভুল দাবি করে রেল মন্ত্রণালয় জানান, এটি সংশোধন করা হচ্ছে।

এটা শুধুই ভুল নাকি অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল, তা তদন্তের দাবি জানিয়ে বিশ্লেষকরা বলেন, ‘দুর্নীতি ও অনিয়ম রোধে দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনতে হবে।’

এই বেতন নির্ধারণের প্রস্তাবে অবাক হয়েছেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি জানান, দুর্নীতি বন্ধে প্রকল্প অনুমোদনের আগে গভীরভাবে পর্যালোচনা করা হয়। প্রকল্পের নামে যারা অনিয়ম করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থার নেয়ার হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

বাংলা/এনএস

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0202 seconds.