• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৪:০৭:২৩
  • ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৪:০৭:২৩
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

ট্রাম্পকে তালেবানের হুমকি

ছবি : পার্সটুডে থেকে নেয়া

ডেভিড ক্যাম্পে তালেবানের সঙ্গে গোপন শান্তি আলোচনা বাতিলের যে সিদ্ধান্ত মার্কিন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেছেন তাতে যুক্তরাষ্ট্রই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে জঙ্গি গোষ্ঠীটি। হুমকি দিয়ে তালেবান বলেছে, শান্তি আলোচনা বাতিল করার ফলে আফগানিস্তানে মোতায়েন মার্কিন সেনাদের জীবন আরো বেশি হুমকির মুখে পড়বে। সোমবার এ সংবাদ জানিয়েছে পার্সটুডে।

ট্রাম্প সম্মতি দিলেই আফগান তালেবানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ঐতিহাসিক শান্তিচুক্তিটি সই হতো। কিন্তু কাবুলে তালেবান হামলায় এক মার্কিন সেনা নিহত হওয়ায় শেষ মুহূর্তে তিনি বেঁকে বসেন। এতেই ভেস্তে গেছে শান্তিচুক্তির পরিকল্পনা।

ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের প্রতিক্রিয়ায় রবিবার (৮ সেপ্টেম্বর) এক বিবৃতি দেয় তালেবান। তাদের মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ জানান, এই সিদ্ধান্তের ফলে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে যুক্তরাষ্ট্রের গ্রহণযোগ্যতা ক্ষতিগ্রস্ত হবে এবং আফগানিস্তানে মার্কিন নাগরিকদের জান ও মাল আরো বেশি হুমকির মুখে পড়বে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, শান্তি আলোচনা থেকে একতরফাভাবে বেরিয়ে গিয়ে আমেরিকা নিজের ‘অপরিপক্বতা ও অনভিজ্ঞতা’র প্রমাণ দিয়েছে। আফগানিস্তান থেকে সকল মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের চেয়ে কম কোনো কিছুতে সন্তুষ্ট হবে না তালেবান। বরং সেরকম কিছু হলে যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেয় তারা।

গত শনিবার আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি ও তালেবান নেতাদের সঙ্গে ক্যাম্প ডেভিডে প্রস্তাবিত বৈঠক বাতিল করার পাশাপাশি তালেবানের সঙ্গে কথিত শন্তি আলোচনা বাতিল করে দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি সেদিন রাতে ধারাবাহিক টুইট বার্তায় বলেন, ‘রবিবার ক্যাম্প ডেভিডে তালেবান নেতাদের সঙ্গে আমার বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সে বৈঠক বাতিল করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

ট্রাম্প আরো বলেন, ‘এমন গুরুত্বপূর্ণ শান্তি আলোচনার সময়ও যুদ্ধবিরতিতে রাজি হতে পারেনি তালেবান এবং তারা ১২ জন নিরীহ মানুষকে হত্যা করেছে। খুব সম্ভবত শক্তিশালী একটি চুক্তির জন্য আলোচনার ক্ষমতা তাদের নেই।’

বাংলা/এসএ

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0247 seconds.