• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৪:৩৩:৩৬
  • ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৪:৩৩:৩৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

প্রতিশোধ নিতে বন্ধুদের হাতে তুলে দিলেন স্ত্রীকে

প্রতীকী ছবি

ভারতের কোলকাতায় দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুরে বন্ধুদের দিয়ে নিজ স্ত্রীকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল এক যুবকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় স্বামী ও তার দুই বন্ধুর বিরুদ্ধে সোনারপুর থানার লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন নির্যাতিতা নারী।

ইতোমধ্যেই নির্যাতিতার স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ, খোঁজ চলছে বাকিদেরও। এমন খবর প্রকাশ করেছে ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন।

পুলিশ জানায়, গত বছর অক্টোবর মাসে উত্তর চব্বিশ পরগনার মধ্যমগ্রামের বাসিন্দা ওই যুবকের সঙ্গে বিয়ে হয় বাগদার ওই যুবতীর। অভিযোগ, বিয়ের পর থেকেই ওই যুবতীর উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন শুরু করে তার স্বামী। অত্যাচার সহ্য করতে না পেরে বাধ্য হয়ে বাপের বাড়ি ফিরেও যান ওই নারী।

আরো জানায়, এরপর বিচ্ছেদের মামলা করেন তিনি। সেই মামলা সংক্রান্ত কাজে বুধবার তাকে কলকাতা হাই কোর্টে ডেকে পাঠায় অভিযুক্ত স্বামী। সেই মতো আদালতে পৌঁছন ওই নারী। সন্ধ্যা পর্যন্ত বসিয়ে রাখার পর ওই যুবতির স্বামী তাকে বলে, একজন উকিলের বাড়ি যেতে হবে। এরপরই স্বামীর দুই বন্ধু তাকে একটি গাড়িতে করে সোনারপুরের একটি বাড়িতে নিয়ে যায়।

ওই নারী অভিযোগ করেন, সেখানে দু’দিন আটকে গণধর্ষণ করা হত তাকে। এরপর ওই নারীকে শুক্রবার রাতে ক্যানিং স্টেশন সংলগ্ন এলাকায় নিয়ে যায় অভিযুক্ত দুই যুবক। তাদের হাত থেকে বাঁচতে কোনো রকমে পালিয়ে ওই নারী স্টেশন চত্বরে ভিড়ের মধ্যে মিশে যান।

তিনি আরো জানান, এরপর ক্যানিং রেল পুলিশের আধিকারিকরদের গোটা বিষয়টি জানান ওই মহিলা। তাদের পরামর্শ মেনেই স্বামী ও তার দুই বন্ধুর বিরুদ্ধে সোনারপুর থানায় লিখিত অভিযোগ জানান নির্যাতিতা। মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে ভয় দেখানো হয়েছিল তাকে। চিৎকার করলে মেরে ফেলা হবে বলা হয়েছিল বলেও অভিযোগ করেন ওই নারী।

বাংলা/এনএস

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 5.1287 seconds.