• ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৯:১৪:১০
  • ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৯:১৪:১০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

আবাসিক হলে সাপ, আতঙ্কে শিক্ষার্থীরা

ছবি : বাংলা

কুবি প্রতিনিধি :

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) আবাসিক হলের  শিক্ষার্থীদের মাঝে সাপ নিয়ে ব্যাপক আতঙ্ক বিরাজ করছে। শুক্রবার (০৬ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের ভিতর থেকে একটি বিষাক্ত সাপ মারা হয়েছে।

হলের উত্তর ব্লকের নীচতলায় ওয়াশরুমের পাশ দিয়ে সাপটি ভেতরে ঢুকার চেষ্টা করলে প্রত্যক্ষদর্শী শিক্ষার্থীরা আতঙ্কিত হয়। একপর্যায়ে সাপটিকে মেরে ফেলেন।

এর আগেও বেশ কয়েক জায়গায় সাপ মারা হয়েছে। শুধু শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলেই নয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, কাজী নজরুল ইসলাম হল ও নওয়াব ফয়জুন্নেসা চৌধুরানী হল সহ শিক্ষকদের ডর্মেটরিতেও রয়েছে সাপের আতঙ্ক।

প্রত্যক্ষদর্শী পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী জাহিদ মোল্লা বলেন, ‘রাত ১টার পরে আমি হাত-মুখ ধোয়ার জন্য ওয়াশরুমের দিকে গিয়ে দেখি জানালা গলে সাপটি ভেতরে আসার চেষ্টা করছে। সাথে আমি আমার বন্ধুদের ডাকি। প্রথমে একটি লাঠি দিয়ে গুঁতো দিলে সাপটি ভয়ঙ্করভাবে ছোবল তুলে ধেয়ে আসে আমাদের দিকে। পরে আমরা সাপটিকে মারতে বাধ্য হই।’

হলের একাধিক শিক্ষার্থী জানান, পাহাড়ঘেরা বন্য ক্যাম্পাস হওয়ায় প্রায়ই আবাসিক হলে বিষাক্ত সাপ দেখা যায়। অনেক সময় ওয়াশরুম-বাথরুম ব্যবহার করতে গিয়ে আতঙ্কে থাকতে হয়। হল প্রশাসন সাপের কথা জেনেও উপদ্রব ঠেকাতে কার্বলিক এসিড বা এজাতীয় কোনো প্রতিরোধ ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এতে যেকোনো সময় বিপদ ঘটতে পারে।

এ ব্যাপারে শহীদ ধীরেন্দ্রনাথ দত্ত হলের প্রাধ্যক্ষ ড. মোহাম্মদ জুলহাস মিয়া বলেন, ‘সাপের উপদ্রবের বিষয়টি জানি। খুব শীঘ্রই হলের বিভিন্ন স্থানে কার্বলিক এসিড দেয়া হবে। হল পাহাড়ঘেরা হওয়ায় শিক্ষার্থীদেরও সতর্কতা অবলম্বন করা জরুরি।’

উল্লেখ্য, এর আগেও বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে সাপের উপদ্রব দেখা গিয়েছে। উপায়ান্তর না দেখে সন্ত্রস্ত শিক্ষার্থীরা সাপ মারতে বাধ্য হয়েছেন।

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0235 seconds.