• বিদেশ ডেস্ক
  • ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৬:১৭:৩৯
  • ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১৬:১৭:৩৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

ফেলে দেয়ার আগে সন্তানের কপালে চুুমু খেলেন বাবা

ছবি : সংগৃহীত

 

তিন সন্তানের পর আরো একটি সন্তানের জন্ম দিয়েছিলেন বিট্টু ও তার স্ত্রী প্রতিভা। সেই শিশুটি ছিলো কন্যাসন্তান। আর তাই দুদিনের সেই কন্যাসন্তানকে রেখে দিয়ে আসেন একটি গির্জার সামনে। তবে সিসিটিভি থাকার কারণে সেই দৃশ্য দরা পড়ে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের কেরলার কোচিতে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজারের খবরে বলা হয়, ত্রিশূরের একটি সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করানো হয় বিট্টুর স্ত্রী প্রতিভাকে। বুধবার ফুটফুটে একটি কন্যাসন্তানের জন্ম দেন তিনি। পরিবারে নতুন অতিথি আসায় আনন্দের থেকে আশঙ্কাই ঘিরে ধরে বিট্টু ও প্রতিভাকে। বাড়ি ফিরলেই বন্ধুবান্ধব, প্রতিবেশীদের কাছ থেকে শুনতে হবে নানা রকম কথা। তাই হাসপাতালে বসেই দুজনে শিশুটিকে কোথাও রেখে আসার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন, পুলিশের কাছে অন্তত তেমনটিই দাবি করেছেন বিট্টু।

লোকলজ্জার হাত থেকে বাঁচতে তাই হাসপাতাল থেকে সবার নজর এড়িয়ে শুক্রবার রাতে তারা সোজা চলে আসেন এরাপল্লির সেন্ট জর্জ ফোরেন গির্জায়। সে সময় গির্জায় আশপাশটা পুরো নির্জনই ছিল। সুযোগও এসে যায়। শিশুটিকে খুব সন্তর্পনে গির্জার সামনে রেখে দেন তারা।

ওই দম্পতি ভেবেছিলেন, যাক রক্ষা পাওয়া গেল। আর কৈফিয়ত দিতে হবে না, পরিহাসের মুখোমুখি হতে হবে না। কিন্তু রক্ষা পেলেন না। ধরা পড়ে গেলেন গির্জার সিসিটিভি ক্যামেরায়।

সেই ক্যামেরার ফুটেজে দেখা যায়, গির্জার সামনে রাখার আগে শিশুটির কপালে ‘স্নেহভরা’ চুম্বনও করেন বিট্টু। তার পর নিঃশব্দে সেখান থেকে সরে পড়েন। রাত তখন সাড়ে ৮টা।

গির্জার নিরাপত্তারক্ষী হঠাৎই শিশুর কান্নার আওয়াজ পেয়ে এগিয়ে আসেন। দেখেই চমকে ওঠেন। একটি সদ্যজাত শিশু কাপড় দিয়ে জড়িয়ে শোয়ানো রয়েছে। সঙ্গে সঙ্গে তিনি পুলিশে খবর দেন। পুলিশ এসে শিশুটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। শিশুটির মা-বাবার খোঁজ করে পুলিশ। তবে তাদের খোঁজ পেতে অবশ্য বেশি বেগ পেতে হয়নি পুলিশকে।

বিট্টু পুলিশকে জানিয়েছেন, বারবার গর্ভবতী হওয়ায় পাড়ায় প্রতিভাকে অনেকেই উপহাস করতেন। বন্ধুবান্ধবরাও কটাক্ষ করতে ছাড়ত না। এসবের হাত থেকে মুক্তি পেতেই সদ্যজাত সন্তানকে রেখে আসার সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেন।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

ভারত কন্যাসন্তান

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0225 seconds.