• বিদেশ ডেস্ক
  • ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১০:০৫:১৮
  • ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১০:০৫:১৮
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

ইসরায়েলের সামরিক ঘাঁটিতে হিজবুল্লাহর ক্ষেপণাস্ত্র হামলা

ছবি : পার্স টুডে থেকে নেয়া

ইসরায়েলের উত্তর সীমান্তের একটি সামরিক ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহ। এতে ইসরায়েলের একটি সামরিক যান ধ্বংস এবং এতে থাকা সেনারা হতাহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এই হামলার কথা স্বীকার করেছে ইসরায়েলি সেনা বাহিনী।

রবিবার ইসরায়েলের আভিভিম সামরিক ঘাঁটিতে এই হামলা চালানো হয়।  লেবাননের আল মায়াদিন টেলিভিশন চ্যানেলের বরাত দিয়ে এমন খবর প্রকাশ করেছে পার্সটুডে।

ওই খবরের প্রতিবেদনে বলা হয়, ইসরায়েলের আভিভিম সামরিক ঘাঁটির সড়কে রাখা দুটি সামরিক যানকে লক্ষ্য করে হামলা চালায় হিজবুল্লাহ’র দুটি সশস্ত্র গ্রুপ। এতে একটি সামরিক যান সম্পূর্ণ ধ্বংস হয় এবং অপরটিতে আগুন ধরে যায়। এসময় গাড়িতে থাকা ইসরাইলি সেনারা হতাহত হয়েছে।

হামলার তথ্য নিশ্চিত করে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী জানায়, লেবানন থেকে ইসরায়েলি ঘাঁটি ও সামরিক যান লক্ষ্য করে অ্যান্টি ট্যাঙ্ক বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়েছে। এতে একটি সামরিক যান ধ্বংস হয়েছে। তবে কেউ হতাহত হয়েছে কি না, তা স্পষ্ট নয়।

দেশটির সেনাবাহিনীর একজন মুখপাত্র জানান, লেবানন সীমান্ত থেকে ইসরায়েলের চার কিলোমিটার ভেতরের এলাকার একটি গ্রামে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা হয়েছে। হামলার কারণে স্থানীয় বাসিন্দাদের বাড়ির বাইরে বের হতে নিষেধ করা হয়েছে। এছাড়া ওই গ্রামের কাছে একটি উন্মুক্ত আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে বলেও জানায় ইসরায়েলি সেনাবাহিনী।

হিজবুল্লাহর সম্ভাব্য হামলার আশঙ্কায় সীমান্তে উচ্চ সতর্ক অবস্থায় রাখা হয়েছে দেশটির সেনাবাহিনীকে। এছাড়াও হিজবুল্লাহর সঙ্গে চলমান উত্তেজনার কারণে সামরিক বাহিনীর একটি প্রশিক্ষণও স্থগিত করেছে ইসরায়েল।

প্রসঙ্গত, শনিবার রাতে এক টেলিভিশন ভাষণে হিজবুল্লাহ মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছিলেন, ‘রাজধানী বৈরুতে সাম্প্রতিক ইসরাইলি ড্রোন হামলার জবাব দেয়ার যে সিদ্ধান্ত তার সংগঠন নিয়েছে তার কোনো নড়চড় হবে না।’ তিনি বলেছিলেন, গত সপ্তাহের ড্রোন হামলার জন্য ইসরাইলকে ‘মূল্য পরিশোধ করতে হবে’।

গত সপ্তাহে ইসরায়েলি ড্রোন হামলার পর হিজবুল্লাহ নেতা তাৎক্ষণিক এক প্রতিক্রিয়ায় প্রতিশোধমূলক হামলা চালানোর হুমকি দিয়েছিলেন। এরপর লেবাননের শেবা কৃষি খামার সংলগ্ন সীমান্তে ইসরায়েল সেনা সমাবেশ শক্তিশালী করেছে।

বাংলা/এনএস

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0201 seconds.