• বাংলা ডেস্ক
  • ১৩ আগস্ট ২০১৯ ১৮:১০:৩২
  • ১৩ আগস্ট ২০১৯ ১৮:১০:৩২
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

কোরবানির মহিষ নিয়ে তুলকালাম কাণ্ড

ছবি : সংগৃহীত

একটি মহিষ নিয়ে তুলকালাম কাণ্ড ঘটে গেলো টাঙ্গাইলে। কোরবানির উদেশ্যে কিনে আনা মহিষ কোরবানির আগেই বেপরোয়া হয়ে ওঠে পালিয়ে যায়। তাকে ধরতে রীতিমত মাঠে নামে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিসসহ হাজার হাজার গ্রামবাসী! ঢাকা থেকে ছুটে যায় প্রাণী সম্পদ বিভাগের কর্মীরা। অবশেষে ২৫ ঘণ্টা চেষ্টার পর মহিষটিকে আটক করা হয়।

টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার যুগিহাটী গ্রামের আরিফ হোসেন কোরবানির উদ্দেশ্যে ১ লাখ ৪২ হাজার টাকা দিয়ে একটি মহিষ কিনে আনেন। সোমবার ঈদের নামাজের পর কোরবানি দেয়ার প্রস্তুতিকালে মহিষটি হঠাৎ লাফিয়ে উঠে। এসময় মহিষটি ধরতে গেলে কয়েকজনকে আহত করে পালিয়ে যায়। তখন এলাকাবাসী মহিষটিকে ধাওয়া করেও ধরতে পারেনি। এরপর যুগিহাটী গ্রাম থেকে মহিষটি চলে আসে ভূঞাপুরের বিদ্যুৎ সাবস্টেশনের কাছে, সেখান থেকে পার্শবর্তী কাগমারী পাড়া গ্রামে চলে যায়।

গ্রামবাসী মহিষটি ধরতে ব্যর্থ হলে এ অভিযানে যোগ দেয় পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা। তারা মহিষটিকে নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করে। ঘটনাস্থলে ভূঞাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ঝোটন চন্দও উপস্থিত হন। কিন্তু মহিষটিকে নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি। মহিষটি রাত ১টার দিকে চার কিলোমিটার দুরে ভূঞাপুরের অলোয়া গ্রামের চকের পানিতে অবস্থান নেয়। ওই মহিষটিকে দেখতে হাজার হাজার উৎসুক জনতা ভিড় করে।

এরপর মহিষটি উদ্ধারের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঢাকায় প্রাণীসম্পদ বিভাগের বিশেষজ্ঞ দলকে খবর পাঠান। মঙ্গলবার মহিষটিকে উদ্ধারের জন্য ঢাকা থেকে প্রাণিসম্পদের একটি টিম আসে। পরে তারা নৌকা যোগে নিকলা বিলে গিয়ে সেটিকে ইনজেকশন পুশ করে দুর্বল করে নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। পরে মহিষটিকে তার মালিকের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

টাঙ্গাইল মহিষ কোরবানি

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0229 seconds.