• বিদেশ ডেস্ক
  • ১৩ আগস্ট ২০১৯ ০০:৪৮:২৫
  • ১৩ আগস্ট ২০১৯ ০০:৪৮:২৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

আম্বানি বললেন ‘সামনের মাসেই কাশ্মীর নিয়ে বৃহৎ পরিকল্পনার ঘোষণা’

মুকেশ আম্বানি। ছবি : সংগৃহীত

কাশ্মীরে বৃহৎ ‘উন্নয়ন’ পরিকল্পনা হাতে নিতে যাচ্ছে ভারতের অন্যতম ধনকুবের শিল্পপতি মুকেশ আম্বানি। রিলায়েন্সের কর্ণধার বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আহ্বানে সাড়া দিয়েই জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখে উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিচ্ছেন তারা। কাশ্মীরের জনগণ যখন অবরুদ্ধ, কারফিউ বন্দি হয়ে ঈদ কাটাচ্ছেন, তখনই এমন ঘোষণা দিলেন আম্বানি। এই ঘোষণা কাশ্মীরের জনগণের জন্য কতটা আশির্বাদ তা নিয়ে রয়েছে বিতর্ক।

সম্প্রতি নরেন্দ্র মোদি সরকার কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নিয়েছে সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে। এই ধারা অনুযায়ী কাশ্মীরের স্থায়ী বাসিন্দা ছাড়া রাজ্যের বাইরের কেউ এখানে জমি কিনতে পারবে না। যার কারণে এখানে রাজ্যের বাইরের বেসরকারি বিনিয়োগের ক্ষেত্রে নানা জটিলতা ছিলো।

৩৭০ ধারা বাতিল ইস্যুতে কাশ্মীর এখন থমথমে এক অবরুদ্ধ অঞ্চল। বিক্ষুদ্ধ হয়ে আছে সেখানকার জনগণ। চলছে কারফিউ। এমন পরিস্থিতিতে কাশ্মীরে বড় ধরনের বিনিয়োগ করার কথা বললেন মুকেশ আম্বানি।

ভারতীয় গণমাধ্যম স্ক্রল ডট ইন জানায়, সোমবার মুম্বাইয়ে একটি সভায় মুকেশ আম্বানি বলেন, ‘আমরা কাশ্মীরের জনগণের পাশে আছি। তাদের উন্নয়নের জন্য আমরা কাজ করে যাবো। আমরা এখানকার মানুষের জন্য একটা বিশেষ টাস্কফোর্স গঠন করবো। সামনের মাসেই কাশ্মীরের উন্নয়ন পরিকল্পনা নিয়ে বড় ধরনের ঘোষণা আসছে।’

আম্বানি যখন উন্নয়নের কথা বলছেন মুম্বাইতে তখন কাশ্মীর এক আতঙ্কপুরি। ভারতের অন্যান্য অঞ্চল থেকে কাজ করতে আসা শ্রমিকরা কাশ্মীর ছেড়ে পালাচ্ছে।

শ্রীনগরসহ গোটা কাশ্মীর উপত্যকায় সোমবার কোরবানির ঈদ পালিত হয় নিরাপত্তার জাল আর কঠোর কারফিউর মধ্যে। শ্রীনগরের বড় কোনো মসজিদে বা প্রধান রাস্তায় ঈদের জমায়েতের অনুমতি দেওয়া হয়নি। শহরের রাস্তাঘাট ছিল প্রায় জনশূন্য, মোবাইল-ল্যান্ডলাইন বা ইন্টারনেট পরিসেবাও এখনো চালু হয়নি। ঈদের দিনেও কাশ্মীরের বেশ কয়েকটি এলাকায় গুলি চলেছে।

সূত্র: স্ক্রল ডট ইন, এনডিটিভি ও বিবিসি

সংশ্লিষ্ট বিষয়

কাশ্মীর মুকেশ আম্বানি

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0198 seconds.