• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৯ আগস্ট ২০১৯ ১৪:৩০:২০
  • ০৯ আগস্ট ২০১৯ ১৪:৩০:২০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

দেশের বাজারে স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ১০ প্লাস

ছবি : সংগৃহীত

 

প্রি-অর্ডার চালুর মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের বাজারে গ্যালাক্সি নোট সিরিজের নতুন ফ্ল্যাগশিপ ডিভাইস গ্যালাক্সি নোট টেন প্লাস আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মোচন করেছে স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশ। দেশের বাজারে ৮ আগস্ট, ২০১৯ তারিখ থেকে প্রি-অর্ডার করা যাবে নতুন ডিভাইসটির জন্য।

অত্যাধুনিক ও অধিক শক্তিশালী ৭ ন্যানোমিটার (এনএম) এক্সিনস ৯৮২৫ প্রসেসর, ১২ জিবি এলপিডিডিআর৪এক্স র‌্যাম, ২৫৬ জিবি রম, ৪,৩০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ার ব্যাটারি যা কিনা মাত্র এক ঘন্টায় ফুল চার্জ হতে সক্ষম এবং কোয়াড রিয়ার ক্যামেরাসহ স্মার্টফোনের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ও সর্বাধুনিক সব ফিচার গ্যালাক্সি নোট টেন প্লাসকে সত্যিই ক্ষমতাধর ডিভাইসের বিচারে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি নতুন ও উন্নত এস পেন বিশেষভাবে ডিভাইসটিকে বিশেষায়িত করেছে।   

নতুন ডিভাইসের সব শক্তি ও উদ্ভাবনী ফিচারের অভিজ্ঞতা অর্জনে এতে রয়েছে ৬.৮ ইঞ্চির ডব্লিউকিউএইচডি+ ডাইনামিক অ্যামোলেডের প্রায় ব্যাজেলবিহীণ ডিসপ্লে। পাশাপাশি এর পেছনের কোয়াড ক্যামেরার ফিচারের মধ্যে অতুলনীয় ভিডিও স্ট্যাবিলাইজেশন, লাইভ ফোকাস অন ভিডিও, প্রফেশনাল গ্রেড ভিডিও এডিটিং বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।    

নতুন ধারার অওরা ব্ল্যাক এবং অওরা হোয়াইট রংয়ের গ্যালাক্সি নোট টেন প্লাস ব্যবহারকারীদের প্রিমিয়াম স্মার্টফোন ব্যবহারের ক্ষেত্রে অন্য সবার থেকে বিশেষভাবে আলাদা করে রাখবে।

উল্লেখ্য, ১০,০০০ টাকা ডিসকাউন্ট দিয়ে গ্যালাক্সি নোট টেন প্লাসের প্রি-অর্ডারকালীন মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে ১৩৪,৫০০ টাকা। অতঃপর, সর্বোচ্চ ১৮ মাসের ০% ইএমআই সুবিধায় দি সিটি ব্যাংকের অ্যামেক্স ক্রেডিট কার্ডের মাধ্যমে ক্রয় করলে পাওয়া যাবে আরো ৫,০০০ টাকা ক্যাশব্যাক। পাশাপাশি, নির্দিষ্ট মডেলের স্মার্টফোন দিয়ে এক্সচেঞ্জ করার ক্ষেত্রে এক্সচেঞ্জকৃত স্মার্টফোনের নির্ধারিত ভ্যালু বা দাম ধরার পর বাড়তি আরো ২০,০০০ টাকা ক্যাশব্যাকের সুবিধা রাখা হয়েছে।

এছাড়াও গ্যালাক্সি নোট টেন প্লাস ক্রেতারা পাবেন সর্বোচ্চ ১০০,০০০ টাকার ডিসকাউন্ট ভাউচার যা পরবর্তীতে নির্দিষ্ট মডেলের স্যামসাং ফোরকে ইউএইচডি স্মার্ট টিভি কেনার সময় ব্যবহার করা যাবে। ক্রেতাদের সুবিধা বৃদ্ধির লক্ষ্যে নতুন ডিভাইসটি ক্রয়ের সময় দ্বিতীয় বছরের জন্য ওয়ারেন্টি প্যাকেজ কিনলে ‘ওয়ান-টাইম স্ক্রিণ রিপ্লেসমেন্ট’(নেভার মাইন্ড অফার) সুবিধা পাওয়া যাবে বিনামূল্যে।

অন্যদিকে, গ্রামীণফোন গ্রাহকরা গ্যালাক্সি নোট টেন প্লাস ক্রয় করে বিনামূল্যে ২০ জিবি ইন্টারনেট ব্যবহার করতে পারবেন। এছাড়া জিপি স্টার প্রোগ্রামের আওতায় গ্রাহকরা প্লাটিনাম প্লাস স্টারে আপগ্রেড হতে পারবেন। উল্লেখ্য, আগামি ৩১ আগস্ট, ২০১৯ তারিখ পর্যন্ত নতুন ডিভাইসের জন্য পি-অর্ডার করা যাবে।     

বাংলাদেশের বাজারে গ্যালাক্সি নোট টেন প্লাস উন্মোচন প্রসঙ্গে স্যামসাং বাংলাদেশের হেড অব মোবাইল মো. মূয়ীদুর রহমান বলেন, “জীবনে কাজের পাশাপাশি গেমিং ও বিনোদন উপভোগ করার সামঞ্জস্য বজায় রাখতে যারা পছন্দ করে তাদের জন্যই মূলত গ্যালাক্সি নোট টেন প্লাস। এছাড়া ডিভাইসটির এমন সব মানুষদের জন্য উপযুক্ত যারা যাই করে না কেনো তা অর্থবহ এবং যাতে ইতিবাচক উদ্দেশ্য বিদ্যমান। যারা সর্বক্ষেত্রে সেরাটাই চান তাদের জন্যই আমাদের এই সেরা স্মার্টফোন।

প্রি-অর্ডার করতে ভিজিট করুন: www.preordernote10.com  

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0259 seconds.