• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ৩১ জুলাই ২০১৯ ১৪:১২:১২
  • ৩১ জুলাই ২০১৯ ১৪:১২:১২
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

মশার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে থানায় জিডি

ছবি : সংগৃহীত

দীর্ঘদিন ধরে রাজধানীর মিরপুরের পল্লবী এলাকায় মশার ওষুধ ছিটানো হয় না। এতে ওই এলাকার লোকজন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন দাবি এলাকাবাসীর। এরইমধ্যে কয়েকজন মারাও গেছেন বলেও জানা যায়।

এদিকে বারবার বলার পরও কার্যকর কোনো ওষুধ না ছিটানো এবং মশার অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে স্থানীয় কাউন্সিলারের বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন ইউসুফ আহমেদ নামে পল্লবীর এক বাসিন্দা।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে পল্লবী থানায় জিডিটি করেন ভুক্তভোগী এই বাসিন্দা। জিডি নম্বর ২৭৬৬। জিডিতে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সাজ্জাদ হোসেনের বিরুদ্ধে মশার ওষুধ না ছিটানোর অভিযোগ আনা হয়েছে।

এ নিয়ে ইউসুফ বলেন, ‘গত কয়েক মাসে একদিনের জন্যও আমাদের পল্লবী এলাকার এভিনিউ-১-এ মশা মারার ওষুধ ছিটানো হয়নি। আমি নিয়মিত বাড়ির হোল্ডিং ট্যাক্স পরিশোধ করে আসছি। সিটি কর্পোরেশনের সব সুবিধার প্রাপ্য আমি। তারপরও কাউন্সিলর ৩ বছর আগে নির্বাচিত হওয়ার পর আমাদের এলাকায় একবারের জন্যও মশার ওষুধ ছিটাননি। বারবার ফোন করলেও তিনি কোনো ব্যবস্থা নেননি।’

তিনি আরো বলেন, ‘বর্তমানে এডিস মশার প্রকোপে আমরা আতঙ্কিত। এলাকায় অনেকেই জ্বরে আক্রান্ত। আমিও ডেঙ্গুসহ যেকোনো রোগে আক্রান্ত হতে পারি, তাই বিষয়টি থানায় নথিভুক্ত করে রাখলাম।’

এ বিষয়ে ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘গতকাল (মঙ্গলবার) ওই ভদ্রলোক আমাকে ফোন করেছিলেন, আমি তাকে কথা দিয়েছি আজ (বুধবার) তার এলাকায় ওষুধ দেব।’

‘গত ৩ বছর ধরে পল্লবীর বি-ব্লকে একদিনও মশার ওষুধ দেওয়া হয়নি’ জিডিতে উল্লেখ করা এ অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর বলেন, ‘আমি ওষুধ দিয়েছি, যদিও প্রমাণস্বরূপ আমার কাছে কোনো ছবি নেই। কিন্তু এলাকাবাসী জানে যে, আমি ওষুধ ছিটিয়েছি। সিটি কর্পোরেশন থেকে ওষুধ পাওয়ার পর আমরা ১৫ থেকে ২০ দিনের মধ্যে ওষুধ ছিটাই। এবার ওষুধ পেয়ে ৭ দিনের মধ্যেই ছিটানো হয়েছে।’

সংশ্লিষ্ট বিষয়

পল্লবী মশা ডেঙ্গু জিডি

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0183 seconds.