• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৫ জুলাই ২০১৯ ২১:৪৪:১০
  • ২৫ জুলাই ২০১৯ ২১:৪৪:১০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

মধ্যপ্রাচ্যে ইসলামি চরমপন্থা প্রতিরোধ করছে ইসরায়েল : নেতানিয়াহু

ছবি : সংগৃহীত

মধ্যপ্রাচ্যে ইসরায়েল রাষ্ট্রের প্রতিষ্ঠা না হলে ওই অঞ্চলটি ইসলামি চরমপন্থীদের নিয়ন্ত্রণে চলে যেতো বলে জানিয়েছেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু।  ইসরায়েল সফররত আরব সাংবাদিক এবং ব্লগারদের একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে সম্প্রতি তিনি এই মন্তব্য করেছেন।

মঙ্গলবার রাজধানী তেল আবিবে প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু ওই প্রতিনিধি দলের সদস্যদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।  পরবর্তীকালে তিনি তার ফেসবুক পেজে তাদের সঙ্গে যে কথাবার্তা হয় তার কিছু বিবরণ দেন।  তিনি লিখেন, ‘ আমি তাদের এমন একটি কথা বলেছি যা আমি  বিশ্বাস করি:  আমি বলেছি, মধ্যপ্রাচ্যের পতন যদি কোন শক্তি রোধ করে থাকে তাহলে তা ইসরায়েল।  ইসরায়েল ছাড়া ইসলামি চরমপন্থীদের কাছে মধ্যপ্রাচ্যের পতন ঘটতো। ’

নেতানিয়াহুর ফেসবুক পোস্ট থেকে জানা যায় ইসরায়েলের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক নেই এমন সব দেশের সাংবাদিকদের সঙ্গে তিনি সাক্ষাৎ করেছিলেন।

এদিকে ইসরায়েলি সংসদ নেসেটের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানা যায়, ওইসব গণমাধ্যম ব্যক্তিত্বরা সৌদি আরব, ইরাক, জর্ডান, আরব আমিরাত এবং মিশর থেকে ইসরায়েল সফরে গিয়েছিলেন।

নেতানিয়াহু তার ফেসবুক পেজে উল্লেখ করেন, কিছু আরব সাংবাদিকের একান্ত ইচ্ছা আরব জনগণ যেন ইসরায়েল রাষ্ট্রটিকে স্বীকৃতি দেয়।  এছাড়া নেসেটের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উদ্ধৃতি দিয়ে বলা হয়েছে প্রতিনিধি দলের একজন ইসরায়েলকে ‘স্বপ্নরাজ্য’ বলে উল্লেখ করেছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে বিশ্বের ছয়টি পরাশক্তি পারমাণবিক চুক্তি করার পর থেকেই ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী প্রতিবেশি আরব দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের চেষ্টা করে যাচ্ছেন। বিশেষ করে সৌদি আরবের সঙ্গে।  কারণ ইসরায়েল এবং সৌদি আরব উভয়েরই অভিন্ন শত্রু  ইরান এবং উভয় দেশই এই চুক্তিকে খারাপ একটি চুক্তি বলে অভিহিত করেছে।  ধারণা করা হচ্ছে, আরব সাংবাদিকদের সাম্প্রতিক এই ইসরায়েল সফরের মাধ্যমে আরব দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পথে আরো এক ধাপ অগ্রসর হলো ইসরায়েল।     

বাংলা/এফকে

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0223 seconds.