• ২৫ জুলাই ২০১৯ ১৮:০৮:০২
  • ২৫ জুলাই ২০১৯ ১৮:৫১:২৭
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

‘নিজেকে নতুনভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা চালিয়ে যাব’

উপস্থাপক ও অভিনেতা ইভান সাইর। ছবি: সংগৃহীত

উপস্থাপক ও অভিনেতা ইভান সাইর। ঈদ উপলক্ষে তিনি নাটকের শুটিংয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন। ঈদের নাটকের কাজ ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা বলেছেন বাংলা’র সঙ্গে।

ঈদের জন্য কোন কোন নাটকের কাজ করলেন?

মাবরুর রশিদ বান্নাহর পরিচালনায় ‘ভিউ বাবা’, ‘লেডি কিলার ২’, হাসান রেজাউলের ‘প্রেম তুমি আমি’ ও রিফাত আদনান পাপনের ‘ফেল্টুস’। এই নাটকগুলোর কাজ শেষ করেছি।

সামনে আরও নাটকের শুটিং আছে?

আরও সাতটি নাটকের কাজ হাতে আছে। ‘প্রেমে পড়া বাড়ন’ এর সিক্যুয়ালে কাজ করব, ২৫-২৬ জুলাই শুটিং। রিফাত আদনান পাপনের ‘অবেলার তিথি’ শিরোনামের নাটকে কাজ করব, শুটিং ২৮-২৯ জুলাই। সব মিলিয়ে সামনের মাসের ৮ তারিখ পর্যন্ত টানা শুটিং করতে হবে।

‘গল্পটা আমাদের’ শিরোনামের নাটকে ভালো সাড়া পাচ্ছেন। নাটকটি নিয়ে বলুন...

আলিফ আহমেদ ও শাহরিয়ার শাওন দুজনে মিলে ‘গল্পটা আমাদের’ নাটকটা নির্মাণ করেছেন। তারা খুব ভালো একটা গল্প বাছাই করেছেন। নাটকের গল্পটা খুব মজার ছিল। তাই দর্শক পছন্দ করছেন। যদিও নাটকটি ঈদে যখন রিলিজ হয়েছিল তখন দর্শকদের কাছ থেকে খুব বেশি সাড়া পাইনি। ঈদের পর নাটকটা আড়ালে পড়ে গিয়েছিল। তবে গত এক সপ্তাহ ধরে অনেক সাড়া পাচ্ছি। শুধু বাংলাদেশ না ভারতের কলকাতা, মালদা, চব্বিশ পরগনা থেকেও অনেকে নাটক দেখে ক্ষুদে বার্তা পাঠিয়েছেন। বিষয়টা আমাকে অবাক করেছে। দর্শকের সাড়া পাওয়ায় নির্মাতারাও অনেক খুশি হয়েছেন। সত্যি আমি দর্শকদের কাছে কৃতজ্ঞ।

অভিনয়ে এখন ভালোই সরব। আগে উপস্থাপনা নিয়ে ব্যস্ত ছিলেন। অভিনয়ের সরব হওয়ার পেছনের অনুপ্রেরণা কী ছিল?

নিয়মিতভাবে অভিনয় করার প্রবল ইচ্ছা আগে থেকেই ছিল। উপস্থাপনাসহ নানা কারণে কাজ করা হয়নি। তারপরও উপস্থাপনার ফাঁকে দু-একটা কাজ করা হয়েছে। অভিনয়ে সরব হওয়ার পেছনে নির্মাতা বান্নাহ ভাইয়ের একটা ভূমিকা আছে। গত ঈদে তার মাধ্যমেই নাটকে ফেরা।

নাটকের কাজের কথা বললেন। সম্প্রতি মিউজিক ভিডিও বা শর্টফিল্মের কোনো কাজ করা হয়েছে?

হ্যাঁ। দুইটা মিউজিক ভিডিওতে কাজ করেছি। একটা কাজী শুভর গানের আরেকটা খালিদ মুন্নার ‘সোনা বউ’ শিরোনামের গানের জন্য।

উপস্থাপনা না অভিনয় কোনটা বেশি উপভোগ করেন?

উপস্থাপনায় এক ধরনের মজা, অভিনয়ে আরেক ধরনের। আমি দুইটাই উপভোগ করি। আলাদাভাবে বলতে গেলে উপস্থাপনার সঙ্গে আমার এত সময় কেটেছে যে এটার প্রতি আলাদা টান আছে। আর অভিনয় তো ভালোবাসার জায়গা, সব সময় অভিনয় করতে চেয়েছি।

অভিনেতা হিসেবে নিজেকে কোন জায়গায় দেখতে চান?

নিজেকে প্রতিষ্ঠিত একজন অভিনেতা হিসেবে দেখতে চাই। অভিনেতা হিসেবে আমাকেও যাতে সবাই চেনে-জানে। বাংলাদেশের নাটকের কথা আসলে যেন আমার নামটাও আসে। অর্থাৎ একজন ভালো অভিনেতা হিসেবে পরিচিতি পেতে চাই।

অভিনয় নিয়ে পরিকল্পনা... 

অভিনয়টা খুব ভালোবাসি। ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রে দর্শকের সামনে হাজির হতে চাই। নিজেকে নতুনভাবে উপস্থাপন করার জন্য চেষ্টা চালিয়ে যাব। যে সুযোগগুলো আসবে, সেগুলো ঠিকঠাক কাজে লাগানোটাই মূল পরিকল্পনা। আর আমার কাছে মনে হয়, সময়ের গল্প বলতে পারলে মানুষ সেটা পছন্দ করে। তাই এই সময়ের গল্প নিয়ে যারা নাটক নির্মাণ করছেন তাদের নির্দেশনায় কাজ করতে চাই।

এ ছাড়া আপনার কাজ নিয়ে বিশেষ কিছু বলার আছে?

হ্যাঁ, আছে। আমার ছোটবেলার বন্ধু সার্জেন্ট মো. গোলাম কিবরিয়া মিকেল, ও সদ্যই আমাদের ছেড়ে না ফেরার দেশে চলে গেছে। এবারের ঈদের আমার পছন্দের কাজগুলো বন্ধু মিকেলকে উৎসর্গ করছি।

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0220 seconds.