• ২০ জুলাই ২০১৯ ১৫:৪৯:৪৫
  • ২০ জুলাই ২০১৯ ১৫:৪৯:৪৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

‘সিনেমার জন্য ছোট পর্দার কাজ বন্ধ করে দিয়েছি’

ছবি : সংগৃহীত

অভিনেতা একে আজাদ। সম্প্রতি ‘স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা’ সিনেমার মাধ্যমে বড় পর্দায় যাত্রা শুরু করেছেন। প্রথম সিনেমা ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা বলেছেন বাংলা’র সঙ্গে।

‘স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা’ সিনেমায় যুক্ত হলেন কীভাবে?

‘ট্রাপড’ শিরোনামের একটি ওয়েব সিরিজের শুটিং করছিলাম ইন্দোনেশিয়ার বালিতে। তখন শুটিংয়ের মাঝখানে সৈকত ভাই বলেন একটা সিনেমার অফার আছে। ভালো একজন পরিচালকের সিনেমা। কথা বলে দেখতে পারো। দেশে আসার পর যোগাযোগ করলাম প্রযোজনা প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে। সিনেমার গল্প শুনালেন তারা। তারপর কথা-বার্তা বলার পর পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান মানিক আমাকে সিনেমায় নায়ক হিসেবে কাজের জন্য নিশ্চিত করেন। মূলত সৈকত ভাইয়ের মাধ্যমেই এই সিনেমায় যুক্ত হওয়া।

বড়পর্দায় আপনার যাত্রা শুরু হলো। প্রথমবার বড়পর্দার জন্য অভিনয় করতে গিয়ে কোনো প্রকার চাপ অনুভব করেছেন?

শুটিংয়ের আগে প্রি-প্রোডাকশনের প্রস্তুতি নিয়েছিলাম। তাই খুব একটা ভয় কাজ করেনি। আসলে আমি কাজটা উপভোগ করার চেষ্টা করেছি। যেহেতু প্রায় চার বছর ধরে ছোটপর্দায় কাজ করছি। এর আগেও ক্যামেরার সামনে দাঁড়ানোর অভিজ্ঞতা থাকায় সমস্যা হয়নি।

মিডিয়া জগতে চার বছর কাজ করছেন। খুব অল্প সময়েই সিনেমায় কাজের সুযোগ পেয়ে গেলেন। কেমন লাগছে?

সবার স্বপ্নই থাকে সিনেমায় কাজ করার। আমারও ছিল। বড়পর্দায় কাজের সুযোগ পেয়ে খুবই ভালো লাগছে। এছাড়া মোস্তাফিজুর রহমান মানিক ভাইয়ের মতো এমন একজন পরিচালকের হাত ধরে সিনেমা জগতে প্রবেশ করলাম। সেই জায়গা থেকে অনেক ভালো লাগছে। যেহেতু সুযোগ পেয়েই গেছি আমি আমার শতভাগ দিয়ে কাজটা করব। আশা করছি দর্শকের কাছে নিজেকে ভালোভাবে উপস্থাপন করতে পারব।

সিনেমায় কাজের জন্য কী কী প্রস্তুতি নিয়েছেন?

গত বছরের নভেম্বর থেকে আমি ছোট পর্দার কাজ বন্ধ করে দিয়েছি। সিনেমায় ভালো কিছু করার জন্য পুরো সময়টা এখানেই দিচ্ছি। ফাইট-ডান্স নিয়ে কাজ করেছি বেশ কিছুদিন। অভিনয়ের জন্য কর্মশালা করেছি। প্রতিনিয়তই নিজের উন্নতির জন্য কাজ করছি। এই সিনেমা শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রস্তুতি চালিয়ে যাব।

‘স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা’ সিনেমার গল্প কোন ধরনের?

এই সিনেমাটির গল্প রোমান্টিক ঘরানার।

সিনেমায় আপনার চরিত্র ও কাজের অভিজ্ঞতা জানতে চাই...

মধ্যবিত্ত পরিবারের এক ছেলের চরিত্রে কাজ করছি। মধ্যবিত্ত হলেও ছেলেটি খুব স্টাইলিশভাবে চলাফেরা করে। চরিত্র নিয়ে আর বেশি কিছু বলতে চাচ্ছি না। আর গত ১২ তারিখ আনুষ্ঠানিকভাবে শুটিং শুরু হয়। তবে একদিন কাজ করার পর আবহাওয়া খারাপ থাকায় আর শুটিং হয়নি। প্রথম দিন আমার সহশিল্পী সালওয়ার সঙ্গে কাজ করেছি। তার সঙ্গে কাজ করে খুবই ভালো লেগেছে। আর পরিচালক মানিক ভাইয়ের সঙ্গেও কাজের সময় বোঝাপড়াটা ভালো হয়েছে। আশা করছি আমরা ভালো কিছু উপহার দিতে পারব।

আবার কবে শুটিং শুরু হবে?

২৩ তারিখ থেকে নড়াইলে একটানা শুটিং হবে।

‘স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা’ ছাড়া আর কোনো সিনেমায় কাজের অফার পেয়েছেন?

‘স্বপ্নে দেখা রাজকন্যা’ সিনেমার পর পরই ‘ফেরারি প্রেম’ শিরোনামের একটা সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম। সিনেমাটি পরিচালনা করবেন রাইসুল ইসলাম রনি। সিনেমাটির এখনো কাজ শুরু হয়নি। ঈদের পর কাজ শুরু হবে।

সিনেমায় কাজ করার স্বপ্নটা কখন থেকে শুরু হয়?

আসলে আমার বেড়ে ওঠা বগুড়ায়। একেবারে মফঃস্বলে। যেহেতু গ্রামে বেড়ে ওঠা, তাই আগে থেকে সিনেমায় কাজ করার স্বপ্ন দেখার সুযোগ হয়নি। ছোটবেলায় মঞ্চ নাটকে শখে কাজ করেছি। সবসময় সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিলাম। তখন ভালোলাগা থেকে কাজ করতাম।

আসলে ২০১৪ সালের আগ পর্যন্ত পেশাদারভাবে মিডিয়ায় কাজ করার ভাবনাই ছিল না। মূলত ইমামি ফেয়ার অ্যান্ড হ্যান্ডসামের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর থেকেই মিডিয়ায় কাজের আগ্রহটা বাড়তে থাকে। তারপরই ধীরে ধীরে অভিনয়ের সঙ্গে জড়িয়ে যাই।

সিনেমায় নিয়মিত কাজ করার চিন্তা আছে?

যেহেতু হাতে দুটো সিনেমা আছে। সিনেমার মধ্যেই থাকতে হবে বেশ কিছুদিন। সিনেমায় নিয়মিত কাজ করার পরিকল্পনা আছে। দেখা যাক কী হয়। সময়ই বলে দেবে সিনেমায় নিয়মিত হবো কিনা।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

অভিনেতা একে আজাদ সিনেমা

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0206 seconds.