• ০৩ জুলাই ২০১৯ ২২:১১:৫২
  • ০৩ জুলাই ২০১৯ ২২:১১:৫২
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন
বিজ্ঞাপন

‘চাইলাম ডিগ্রী, হইলাম জঙ্গী’

ছবি : সংগৃহীত

ইবি প্রতিনিধি :

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রীর দাবিতে আন্দোলনকারীদের ‘জঙ্গী বা সন্ত্রাসী’ বলার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদভূক্ত পাঁচ বিভাগের শিক্ষার্থীরা। বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টায় প্রশাসন ভবনের সামনে মানববন্ধন করে তারা। একইসাথে তারা দ্রুত ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রী প্রদানেরও দাবি জানায়।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীদের হাতে ‘আমি জঙ্গী, চাইলাম ডিগ্রী হইলাম জঙ্গী, ডিগ্রী নিয়ে প্রহসন কোন?, আর নয় কালক্ষেপন এবার চাই বাস্তবায়ন, দাবি মোদের একটাই ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রী চাই, যে তদন্ত কমিটি আমাদের জঙ্গী বলে তাদের সিদ্ধান্ত মানি না,’ এসব লেখা ফেস্টুন দেখা যায়।

মাননবন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘চেয়েছিলাম ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রী হয়ে গেলাম জঙ্গী। আমরা যদি জঙ্গী বা সন্ত্রাসী হই এখানে দাড়িয়ে আছি গুলি করুন, আর আমরা যদি জঙ্গী হই তাহলে যে সকল শিক্ষকরা ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রীর আশ্বাস দিয়েছেন তারা জঙ্গীর মদদদাতা। অচিরেই এই শব্দদয় অনুষদীয় মিটিংয়ে লিখিতভাবে বাতিল করতে হবে।’ 

এদিকে মানববন্ধনের এক পর্যায়ে একটি প্রতিনিধি দলকে কার্যলয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী সাথে সাক্ষাত করেন। এসময় উপাচার্য জানান, একাডেমিক কমিটির সভায় শিক্ষকদের সামনেই এটি বাতিল করা হয়েছে। তবে শিক্ষার্থীরা অনুষদীয় সভায় এটি লিখিতভাবে বাতিলের দাবি করেন। 

এ বিষয়ে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মমতাজুল ইসলাম বলেন, ‘গত ২৯ এপ্রিলে অনুষদদীয় সদস্যরা তাদের আন্দোলন ও কার্যক্রমকে জঙ্গী ও সন্ত্রাসীমূলক বলে আখ্যা দিয়েছেন। পরে গত ২৫ জুন একাডেমিক কাউন্সিলে এই শব্দ দুইটি এক্সপাঞ্জ করা হয়েছে।’ 

উল্লেখ্য, দীর্ঘ ৯ মাস ইঞ্জিনিয়ারিং ডিগ্রীর দাবিতে আন্দোলন করছে প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদভূক্ত শিক্ষার্থীরা। পরে গত ২৪ এপ্রিল অমরন অন্বেষণ করে আন্দালনকারীরা। এসময় সারারাত অনুষদের অনুষদের দুইজন শিক্ষককে আটকে রাখে তারা। একই রাতে ২২ জন শিক্ষার্থীকে আটক করা হয়। এ ঘটনাকেই অনুষদীয় সভার শিক্ষকরা জঙ্গী বা সন্ত্রাসী কার্যক্রম বলে দাবি করেন।

বাংলা/এএএ

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0180 seconds.