• বিনোদন ডেস্ক
  • ০২ জুলাই ২০১৯ ১৭:৪০:৪৪
  • ০২ জুলাই ২০১৯ ১৭:৪০:৪৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

দঙ্গলকন্যা জায়রাকে ‘অকৃতজ্ঞ’ বললেন রবীনা ট্যান্ডন

ছবি : সংগৃহীত

ধর্মীয় কারণে অভিনয় ছাড়তে হচ্ছে, ঘোষণা দিয়েছেন দঙ্গলকন্যা অভিনেত্রী জায়রা ওয়াসিম!  এরপর থেকেই বিনোদন জগতে তার এই মতামত ও সিদ্ধান্ত নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে।

অনেকেই তার এই সিদ্ধান্তের প্রশংসা করেছেন, অনেকেই বলছেন সিদ্ধান্তকে সম্মান করা উচিত। অনেকেই আবার ধর্মীয় কারণে এমন সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য তার সমালোচনা করেছেন। এই সমালোচকদের অন্যতম হলেন নব্বইয়ের দশকের অভিনেত্রী রবীনা ট্যান্ডন।

টুইটে রবীনা লিখেছেন, ‘মাত্র দুটা সিনেমা করে কেউ যদি চলচ্চিত্র শিল্পের প্রতি অকৃতজ্ঞ হয়, তাতে কিছু আসে যায় না। শুধু এটুকু চাই, সম্মান বজায় রেখেই যেন তারা প্রস্থান করে এবং নিজেদের প্রতিক্রিয়াশীল দৃষ্টিভঙ্গি নিজের কাছেই রাখে।’

অল্টনিউজের প্রতিষ্ঠাতা প্রতীক সিনহাকে লেখা অন্য একটি টুইটে রবীনা ট্যান্ডন বলেছেন, ‘বেরিয়ে যাওয়া তোমার পছন্দ। তবে সবার জন্য এই শিল্পকে ছোট করে দিও না।’

রবীনা ট্যান্ডন চলচ্চিত্র শিল্পকে ‘কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলা, জাতি ও ধর্মের ভেদাভেদহীন এক শিল্প' হিসেবেই বর্ণনা করেছেন।

তবে জায়রা ওয়াসিমের পাশে রয়েছে বলিউড। দঙ্গল ও সিক্রেট সুপারস্টারের সহ-তারকা আমির খান তার সমর্থনে একটি বিবৃতি পোস্ট করেছেন। অনুপম খের, জাভেদ আখতার, স্বরা ভাস্কর এবং অন্যান্যরাও তার সমর্থনে পাশে থাকার বার্তাও পোস্ট করেছেন।

এছাড়া কাশ্মীরের রাজনীতিবিদ ওমর আবদুল্লাহ জায়রা ওয়াসিমের জন্য শুভকামনা জানিয়ে টুইট করেছেন।

১৮ বছরের জায়রা ওয়াসিম এই সপ্তাহে সোশ্যাল মিডিয়াতে ঘোষণা করেছেন যে, ‘পাঁচ বছর আগে যখন সিনে দুনিয়ায় পা রেখেছিলাম তখনও জানতাম না, জীবনটা এভাবে বদলে যাবে। বলিউড আমায় যশ-খ্যাতি-অর্থ-প্রতিপত্তি-ভালোবাসা সব দিয়েছে। বদলে কেড়ে নিয়েছে আমার বিশ্বাস। আমার ধর্ম। আল্লাহর করুণা, আশীর্বাদ। বিশ্বাস করুন, এই জীবন আমি চাইনি। তাই এই পরিণতি মন থেকে একেবারেই মেনে নিতে পারছি না। মনের সাথে সারাক্ষণ যুদ্ধ করতে করতে আমি ক্লান্ত। পাঁচ বছরে বুঝলাম, বলিউড আমার জন্য নয়। তাই এবার বিদায় নিতে হবে আমাকে।’

মাত্র ১৩ বছর বয়সে আমির খানের ‘দঙ্গল’ ছবিতে প্রথম অভিনয় করেন জায়রা। এই সিনেমার জন্য জাতীয় পুরস্কার পান জায়রা। তারপরও তার এই সিদ্ধান্ত বলিউডকে অবাক করেছে। হতবাক করেছে ভক্তদের। সোনালি বসুর দ্য স্কাই ইজ পিঙ্ক (The Sky Is Pink) হবে জায়রার অভিনয় জীবনের শেষ ছবি। এই সিনেমায় তিনি প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, ফারহান আখতারের মতো প্রথম সারির অভিনেতাদের সঙ্গে অভিনয় করেছেন। চলতি বছরের মার্চে ছবির শুটিং শেষ হয়েছে।

জায়রা ওয়াসিমকে অনেকেই স্মরণ করিয়ে দিয়েছেন যে, হিন্দি চলচ্চিত্র শিল্পের অন্যতম বিখ্যাত তিনজন তারকা এবং সবচেয়ে শক্তিশালী অভিনেতাই ধর্মের দিক থেকে মুসলিম- আমির, সালমান এবং শাহরুখ খান। অনেকেই বলছেন যে, বলিউডের জনপ্রিয় নারীরাও অধিকাংশই মুসলিম-ওয়াহিদা রহমান, মীনা কুমারী, মধুবালা, নার্গিস, শাবানা আজমি, পারভীন বাবি, জিনাত আমান এবং আরও অনেকে।

জায়রা ওয়াসিম খুব কম বয়সী এবং এর আগেও ডিপ্রেশনের সাথে তার লড়াইয়ের কথা বলেছিলেন। গত বছরই, জায়রা ওয়াসিম জানিয়েছিলেন যে, গুরুতর উদ্বেগ ও ডিপ্রেশনে ভুগছেন তিনি। নানা সময় তার মনে আত্মঘাতী চিন্তাভাবনা আসে। ২০১৭ সালে জায়রা ওয়াসিম একটি পোস্ট করেও ডিলিট করতে বাধ্য হন। তৎকালীন জম্মু ও কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতির সাথে সাক্ষাতের জন্য ভয়ানক ট্রোলিং হয় তাকে নিয়ে। সূত্র: এনডিটিভি বাংলা

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0228 seconds.