• ২৮ জুন ২০১৯ ১৬:২৭:২০
  • ২৮ জুন ২০১৯ ১৬:২৭:২০
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

‘যারা ভিন্নধর্মী কাজ দেখতে চায় তাদের জন্য এই ছবি’

চিত্রনায়ক নিরব। ছবি : সংগৃহীত

চিত্রনায়ক নিরব অভিনীত ‘আব্বাস’ ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে আগামী ৫ জুলাই। এ ছবিতে কাজের অভিজ্ঞতা ও প্রত্যাশা নিয়ে সম্প্রতি তিনি কথা বলেছেন বাংলা’র সঙ্গে।

‘আব্বাস’-এ কাজের অভিজ্ঞতা কেমন ছিল?

ছবিটি একদম ভিন্নধর্মী। নতুন একটা কনসেপ্টে নতুন একটা চরিত্র উপস্থাপন করাটা একটু কঠিন ছিল। আব্বাস চরিত্রটি কখনও লুঙ্গি পড়তেছে, কখনও আবার ঢোলাঢালা প্যান্ট পড়তেছে। চরিত্রটি দাড় করাতে পরিশ্রম করতে হয়েছে। চরিত্রটি ঠিকঠাকভাবে উপস্থাপন করে তোলার জন্য পরিচালক সাইফ চন্দন আমাকে অনেক সাহায্য করেছেন। এছাড়া টিমের সাপোর্ট তো ছিলই। আমাকে সবাই সাহায্য করেছেন। শুধু আমি না পুরো টিম খুব ভালো কাজ করেছে। সবার প্রচেষ্টায় একটা ভালো কাজ হয়েছে। ছবিটিতে কাজ করে আমি পুরোপুরি সন্তুষ্ট। সবমিলিয়ে কাজের অভিজ্ঞতা খুবই ভালো। 
 

প্রথমবারের মতো সোহানা সাবার সাথে জুটি বেঁধে কাজ করলেন। একসঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতা কেমন ছিল?

সোহানা সাবার সাথে কাজের অভিজ্ঞতা খুবই দুর্দান্ত। সোহানা খুব ভালো অভিনেত্রী। যখন সহশিল্পী ভালো অভিনয় করবে, তখন আপনা আপনি ভালো অভিনয় বের হয়ে আসে। যেহেতু সোহানা ভালো অভিনয় করে আমার অভিনয়ও ভালো হয়েছে। শর্ট দেওয়ার সময় সে আমাকে বলতো, কীভাবে কাজটা করলে আরো সুন্দর হবে। তার পরামর্শে কাজে লেগেছে। প্রথম কাজেই আমাদের মধ্যে ভালো একটা বোঝাপড়া হয়ে গেছে। সামনে আশা করি সুযোগ হলে আরও কাজ করবো। তখন এই অভিজ্ঞতাগুলো কাজে লাগবে বলে আমি মনে করি।

‘আব্বাস’-এর ফার্স্টলুক ও ট্রেলার প্রকাশ পেয়েছে, কেমন সাড়া পাচ্ছেন?

অনেক সাড়া পাচ্ছি। অনেকের কাছ থেকেই প্রশংসা পাচ্ছি। প্রথমে ফার্স্টলুক প্রকাশের পর দর্শক ছবিটির প্রতি যেই আগ্রহ দেখিয়েছেন, সত্যিই আমি অবাক হয়েছি। শুধুমাত্র ফার্স্টলুক দেখার পর এমন আগ্রহ আমি কোনো সিনেমাই এখন পর্যন্ত দেখিনি। ফেসবুকে ফার্স্টলুক ও ট্রেলার শেয়ার করে চলচ্চিত্র প্রেমীরা প্রসংশা করছেন। শুধু ভক্তরাই নয় বিশেষ করে চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টদের মধ্যে আমার সহকর্মী, বন্ধু ও পরিচালকদের কাছ থেকে প্রসংশা পেয়েছি। আর ট্রেলারের প্রকাশের পর মানুষের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ দেখতে পাচ্ছি। খুব ভালো সাড়া পাচ্ছি। সত্যি ছবিটি নিয়ে আমার আশা দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে।

দর্শক কেন ছবিটি দেখতে হলে যাবে?

রুচিশীল দর্শক যারা আসলে ভিন্নধর্মী কাজ দেখতে চায় তাদের জন্য এই ছবি। ছবির গল্পটা খুব ভালোভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। গল্পই দর্শককে টানবে ছবিটি দেখার জন্য। সাধারণ মানুষের পছন্দের বিষয়গুলো বিবেচনায় রেখেই ছবিটা নির্মিত হয়েছে। দর্শক মূলত বিনোদনের জন্যই ব্যস্ততার মাঝে হলে ছবি দেখতে যান। এতটুকু নিশ্চিতভাবে বলতে পারি ছবিটি দেখলে দর্শক পরিপূর্ণ বিনোদন পাবে। সবমিলিয়ে এসব কারণেই দর্শক ছবিটি দেখতে হলে যাবে।

‘আব্বাস’ নিয়ে আপনি কতটুকু আশাবাদি-

যখন কাজটি শুরু করি তখন থেকেই মনে হচ্ছিল নতুন কিছু করতে যাচ্ছি। ইতোমধ্যে ছবিটির ফার্স্টলুক ও ট্রেলার প্রকাশিত হয়েছে। প্রথম দর্শনেই দর্শকের কাছ থেকে অনেক সাড়া পাচ্ছি। ছবিটির গান প্রকাশিত হলে দর্শকের মাঝে আরও আগ্রহ বাড়বে বলে আমি মনে করি। সত্যি কথা বলতে ছবিটি নিয়ে আমি ভীষণ আশাবাদি। আশা করি ভালো কিছু হবে। সবাইকে আগামী ৫ জুলাই হলে গিয়ে ছবিটি দেখার আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।

ক্যারিয়ারে তো অনেক বছর পার করে ফেলেছেন। অনেকটাই পরিণত। এখন সামনের পরিকল্পনা কী?

নিজের সাথে নিজের প্রতিযোগিতা করতে চাই। সামনের ছবিগুলোতে যাতে আরও ভালো অভিনয় করতে পারি সেই চেষ্টা করবো। প্রত্যেকটা ছবিতে নিজেকে নতুনভাবে উপস্থাপন করতে চাই।

সংশ্লিষ্ট বিষয়

চিত্রনায়ক নিরব আব্বাস

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0191 seconds.