• ক্রীড়া ডেস্ক
  • ০৮ জুন ২০১৯ ১৮:১৮:৪৯
  • ০৮ জুন ২০১৯ ১৮:১৮:৪৯
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

ধারাভাষ্যকারদের সতর্ক করলো আইসিসি

ছবি : সংগৃহীত

বিশ্বকাপের মতো বড় আসরেও দেখা দিয়েছে আম্পায়ারিং বিতর্ক। শুক্রবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে একের পর এক ভুল সিদ্ধান্ত দিয়ে বিতর্ক তৈরি করেছেন আম্পায়ার ক্রিস গ্যাফানি ও রুচিরা পালিয়াগুর্গে।

ক্রিকেটবিশ্বে এ নিয়ে সমালোচনা চলছেই। বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে উঠেছে সমালোচনার ঝড়। তবে তার আগেই আম্পায়ারদের এমন অগ্রহণযোগ্য ভুলের সমালোচনা করতে কার্পণ্য করেননি সেই ম্যাচে উপস্থিত ধারাভাষ্যকাররা।

আর এতেই ধারাভাষ্যকারদের ওপর চটেছে আইসিসি। আইসিসি একটি সতর্কবার্তা পাঠিয়েছে তাদের।

বৃহস্পতিবার ইংল্যান্ডের নটিংহ্যামে মুখোমুখি হয় অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এ ম্যাচে আম্পায়ার রুচিরা পালিয়াগুরুগে ও ক্রিস গেফেনি বেশ কয়েকটি বিতর্কিত সিদ্ধান্ত দেন। যদিও রিভিউ নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ চারবার বেঁচে যায়।

বিতর্কিত সিদ্ধান্তের দুটিই ছিল গেইলের বিপক্ষে। দুবার গেইলকে ভুল আউট দেন আম্পায়ার। তবে রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান গেইল। তৃতীয়বার সিদ্ধান্ত সঠিক হলেও ভুলটি ছিল অন্য জায়গায়। মিসেল স্টার্কের যে বলে গেইলকে এলবিডব্লিউর সিদ্ধান্ত দিয়ে মাঠ থেকে বের করা হয়, সেটি আসলে নো বল ছিল।

ইনিংসের ৫ম ওভারের ৫ম বলে মিচেল স্টার্কের বলে এলবিডব্লিউ হন গেইল। তবে এর আগের ডেলিভারিতেই স্টার্ক বোলিং সীমার বাইরে পা রেখে বল করেছিলেন। সেটি ছিল নো বল। নিয়ম অনুযায়ী, নো বলের পরের বলে ফ্রি হিট পাওয়ার কথা ক্যারিবীয়দের।

কিন্তু আম্পায়ার গেফেনি গেইলকে আউটের সংকেত দেন। কারণ স্টার্কের করা নো বলটি আম্পায়ারের চোখ এড়িয়ে যায়। শুধু গেইলই নয় জেসন হোল্ডারও দুবার ভুল সিদ্ধান্তের শিকার হন আম্পায়ারের। দুই যাত্রাতেই রিভিউ নিয়ে বেঁচে যান তিনি।

নিজের দলের ওপর এমন অবিচার দেখে আর চুপ করে থাকতে পারেননি ক্যারিবিয়ান কিংবদন্তি ও জনপ্রিয় ধারাভাষ্যকার মাইকেল হোল্ডিং। ধারাভাষ্য রুমে বসে সঙ্গেসঙ্গে প্রতিবাদ করে হোল্ডিং বলেন, ‘আমি এটা না বলে থাকতে পারছি না যে এই ম্যাচে অত্যন্ত বাজে আম্পায়ারিং হয়েছে।’

এমন মন্তব্যের আগে ক্ষমাও চেয়ে নেন তিনি।

কিন্তু তাতে কাজ হয়নি তেমন। হোল্ডিংয়ের এই কথার জের ধরে ধারাভাষ্যকারদের সতর্কবার্তা পাঠিয়েছে আইসিসি।

ইমেইলে আইসিসির কর্তৃপক্ষ বলছে, ধারাভাষ্যকারদের নিরপেক্ষ থাকা উচিত। আম্পায়ারের ব্যাপারে যেন তারা নিরপেক্ষ থাকেন এবং তাদের ভালো কাজের প্রশংসা করেন।

প্রসঙ্গত, ওই ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ৪৯ ওভারে ২৮৮ রানে অলআউট বিশ্বকাপের বতর্মান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। টার্গেট তাড়া করতে নেমে ভুল আম্পায়ারিং এবং মিসেল স্টার্কের গতির মুখে পড়ে ৫০ ওভারে ২৭৩ রানে অলআউট ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ১৪ রানে জয় পায় অস্ট্রেলিয়া।

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0208 seconds.