• নিজস্ব প্রতিবেদক
  • ০৪ জুন ২০১৯ ১৭:৫৪:৪৫
  • ০৪ জুন ২০১৯ ১৭:৫৪:৪৫
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

খালেদার এবারের ঈদ কাটবে হাসপাতালে, পাবেন যেসব খাবার

পুরনো ছবি

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গত ঈদ কেটেছিল পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের বিশেষ কারাগারে। এবারের ঈদুল ফিতর তাকে করতে হচ্ছে ঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে। এটিও হবে তার জীবনে প্রথম।

ঈদের দিন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার জন্য বিশেষ খাবারের ব্যবস্থা করেছে কারা কর্তৃপক্ষ।

দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, ঈদের সকালে খালেদা জিয়াকে দেয়া হবে পায়েস, সেমাই ও মুড়ি। এসবই ঢাকা কেন্দ্রীয় (কেরানীগঞ্জ) কারাগারের কারারক্ষীদের তৈরি। তবে অন্যান্য কয়েদির মতো নয়, তার খাবার তৈরি হবে চিকিৎসকের পরামর্শ ও ডায়েট চার্ট অনুযায়ী।

দুপুরে খালেদা জিয়া পাবেন ভাত অথবা পোলাও। এর মধ্যে যেটি খেতে চান সেটি আগে থেকে কারা কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দিতে পারবেন। ভাত অথবা পোলাও যাই খেতে চান, তার সঙ্গে পাবেন ডিম, রুই মাছ, মাংস আর আলুর দম।

রাতেও পাবেন পোলাও। সঙ্গে গরু অথবা খাসির মাংস, ডিম, মিষ্টান্ন, পান-সুপারি এবং কোমল পানীয়।

এসব মেন্যুর বাইরে খালেদা জিয়া অন্য কোনো খাবার খেতে চাইলে কারা কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে পারবেন। তবে তা তাকে দিতে বাধ্য নয় কারা কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও তিনি চাইলে ঈদে পরিবারের সদস্যদের তৈরি খাবার খেতে পারবেন। তবে এক্ষেত্রে তার পরিবারের পক্ষ থেকে আগে থেকেই কারা কর্তৃপক্ষকে খাবারের বিষয়ে জানাতে হবে।

ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের জেলার মাহবুব আলম বলেন, কারাবিধি অনুযায়ী খাবার পাবেন খালেদা জিয়া। ঈদের দিন অনুমতি সাপেক্ষে পরিবারের সদস্যরা তার সঙ্গে দেখা করতে পারবেন। সেদিন তারা বেগম জিয়ার জন্য খাবারও নিয়ে আসতে পারবেন। কারা কর্তৃপক্ষ তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে  খেতে দেবে।

কারা জীবনে খালেদার সঙ্গে থাকছেন গৃহকর্মী ফাতেমা বেগম। দীর্ঘদিন ধরে খালেদার গৃহপরিচারিকা হিসেবে কাজ করছেন ফাতেমা। কারাগারে খালেদার সঙ্গে একই সেলে থাকার পর এবার একই কেবিনে থাকছেন ফাতেমা।

কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, খালেদার পাশাপাশি একই খাবার পাবেন ফাতেমা বেগম। ফাতেমার পরিবারের লোকজনও তার সঙ্গে হাসপাতালে দেখা করতে যেতে পারবেন।

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0236 seconds.