• বিদেশ ডেস্ক
  • ২৯ মার্চ ২০১৯ ২২:৪৫:১৬
  • ২৯ মার্চ ২০১৯ ২২:৪৫:১৬
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

নিউজিল্যান্ডে মসজিদে হামলায় নিহতদের স্মরণে প্রার্থনা

ছবি : সংগৃহীত

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে দুই সপ্তাহ আগে ঘটা সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের স্মরণে জাতীয় প্রার্থনা সভার আয়োজন করেছে দেশটির সরকার। এতে প্রায় ২৫ হাজারের মত মানুষ উপস্থিত হয়েছিলেন।
মর্মান্তিক ওই হত্যাকাণ্ডের দুই সপ্তাহ পূর্তিতে শুক্রবার এই প্রার্থনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এতে নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আরডার্ন, অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন, নিউজিল্যান্ডের গায়ক মারলন উইলিয়ামস, টিকস, গায়িকা হলি স্মিথ এবং ব্রিটিশ গায়ক ও গীতিকার ইউসুফ ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। প্রসঙ্গত, প্রখ্যাত ব্রিটিশ শিল্পী ক্যাট স্টিভেন্স ধর্মান্তরিত হয়ে ইউসুফ ইসলাম নাম নেন।   

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি পার্কে আয়োজিত ওই অনুষ্ঠানে ইউসুফ ইসলাম, মারলন স্মিথ এবং হলি স্মিথ ‘উই আর ওয়ান’ গান গেয়ে মুসলিম সম্প্রদায়ের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করেন।    

ইউসুফ ইসলাম বলেন, ‘দুই সপ্তাহ আগে মসজিদে নামাজ পড়ার সময় অশুভ এক হত্যাকাণ্ডের শিকার হয়ে যাদের জীবন গিয়েছে তাদের পরিবারের প্রতি আমার অন্তরের অন্তস্তল থেকে আন্তরিক ভালোবাসা জানাই।’ এরপর তিনি তার বিখ্যাত গান পিস ট্রেন এবং ডোন্ট বি শাই গেয়ে শোনান।

নিউজিল্যান্ডের আদিবাসী মাউরিদের গাউন পরিহিত দেশটির প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা প্রার্থনা সভায় উপস্থিতদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘বর্তমান বিশ্ব বিদ্বেষপূর্ণ চরমপন্থার প্রজনন ক্ষেত্রে পরিণত হয়েছে এবং চরমপন্থার এক চক্রে আটকা পড়েছে। এই চক্র শেষ করতে হবে।’

অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন জানান, অস্ত্র আইন এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে চরমপন্থী মতবাদ যাতে প্রচারিত না হয় সে ব্যাপারে তিনি নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে একত্রিত হয়ে কাজ করতে চান।

তিনি বলেন, ‘সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম যাতে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহৃত হতে না পারে সেজন্য আমাদের এখনই একটি আইনের প্রবর্তন করতে হবে।’

পুরো অনুষ্ঠানটি জাতীয় টেলিভিশনে সম্প্রচারিত হয়। এদিকে ক্রাইস্টচার্চের প্রার্থনা সভা ছাড়াও নিউজিল্যান্ডজুড়ে শুক্রবার বিভিন্ন স্থানে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের স্মরণে শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়।  এর মধ্যে অকল্যান্ডের ইডেন পার্কে অনুষ্ঠিত সভায় নিউজিল্যান্ডের রাগবি দলের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। 

উল্লেখ্য, ১৫ মার্চ ক্রাইস্টচার্চের আল নুর এবং লিনউড মসজিদে জুমার নামাজ পড়ার সময় উপস্থিত মুসল্লিদের উপর নির্বিচারে গুলি করে হত্যা করে অস্ট্রেলিয়ার নাগরিক ব্রেনটন ট্যারান্ট। সন্ত্রাসী এই হামলায় নারী, শিশু এবং পুরুষসহ ৫০ জন নিহত হন। এছাড়া আরো অনেকেই আহত হন।

বাংলা/এফকে

 

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0174 seconds.