• বাংলা ডেস্ক
  • ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১৮:২৬:৫২
  • ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১৮:২৬:৫২
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

একুশে গ্রন্থমেলায় আলোচিত ১০ বই

ছবি : সংগৃহীত

আর ৩দিন পরেই একুশে গ্রন্থমেলা শেষ হতে যাচ্ছে। এবারের গ্রন্থমেলাতে কিছু বই পুরো ফেব্রয়ারী মাসজুড়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে আলোচনার ঝড় তুলেছে। এসব বইগুলো বিক্রির হিসেবেও সর্বাধিক বিক্রির তালিকাতে রয়েছে।

আসুন অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৯ এর আলোচিত ১০ টি সেরা বই সম্পর্কে জেনে নিই….

১) প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ ২

লেখকঃ আরিফ আজাদ

কোরআনের বিভিন্ন বানী নিয়ে নাস্তিকরা বিভিন্ন ধরনের প্রচার প্রচারনা চালিয়ে নাস্তিক তৈরির কাজ খুব সুচারুভাবে করে যাচ্ছে। বিভিন্ন প্রচার মিডিয়াতে সেগুলোর প্রচারণার কারনে সাধারণ মুসলিমদের বিশ্বাসে ইতিমধ্যে বিশাল ঢাক্কা দিতে সক্ষম হয়েছে নাস্তিকরা।

নাস্তিকদের বিভিন্ন যুক্তিগুলোকে গল্পের ছলে খন্ডন করেছে আরিফ আজাদ। সেটি নিয়েই বই প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ-২। এ সিরিজের প্রথম পর্বটিও সবচাইতে বেশি বিক্রিত বইয়ের তালিকাতে ছিলো। শোনা যায়, প্রথম পর্বটি  ১.৫ লাখ কপির বেশি বিক্রিত হয়েছিলো।

প্যারাডক্সিক্যাল সাজিদ-২ বইটি বাজারে আসার আগেই পাঠক সমাজে সবচাইতে প্রতিক্ষিত বই ছিলো। বইটি আসার প্রথম ৩দিনেই ৮,০০০ কপি বিক্রি হয়ে গিয়েছে এবং সবগুলো অনলাইন বই বিপণন প্রতিষ্ঠানগুলোর হিসেব মতেও  ইতিমধ্যে এ বইটি তাদের সবচাইতে বেশি বিক্রিত বইয়ের তালিকাতে জায়গা করে নিয়েছে। কয়েকবার মেলাতে এ বই নিয়ে মারামারিও হয়েছে। একটা পযায়ে এ বইটি ঢাকার বইমেলাতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে বলে একটা প্রচারণা শুরু হয়েছিলো।

 অনলাইনে প্রাপ্তির লিংকঃ http://bit.ly/2Ec0luL

২) স্টুডেন্ট হ্যাকস

লেখকঃ আয়মান সাদিক , সাদমান সাদিক

পড়াশোনা ব্যাপারটা আমাদের সবার কাছেই একটা বিরক্তির নাম। পড়াশোনা আমাদের কাছে রসকষহীন। আমরা যেটুকু পড়াশোনা করি তার পুরোটাই কিন্তু পরিবারের চাপে অথবা ভবিষ্যতে একটা ভালো চাকরি পাবার আশায়। আমরা কেউ নতুন কিছু শিখতে পারবো এটা ভেবে পড়াশোনা করি না। এজন্য পড়াশোনাটাও আমাদের কাছে মজা বা আকর্ষণীয় হয়ে ওঠে না কখনও। এই পড়াশোনাটায় কিভাবে মজায় মজায় ও সঠিক নিয়মে করা যায়! একাডেমিক পড়াশোনা ব্যাতিত অন্যবইগুলো আমাদের কি প্রয়োজনে আসবে! স্টুডেন্ট লাইফে যে

কাজগুলো অতিব করণীয় এবং কি কি কাজ বর্জনীয় এমন নানা বিষয়ের উপর অনেক সুন্দরভাবে উপস্থাপন করা আছে বইটিতে। আশা করছি প্রতিটা স্টুডেন্টের ক্ষেত্রেই পথ প্রদর্শক হিসাবে কাজ করবে আয়মান ও সাদমান এর লেখা স্টুডেন্ট হ্যাকস বইটি।

 অনলাইনে প্রাপ্তির লিংকঃ http://bit.ly/2AZKQ7g

৩) প্যারাময় লাইফের প্যারাসিটামল

লেখকঃ  ঝংকার মাহবুব

আমাদের তরুণ প্রজন্মের একটা বড় অংশ জীবনের একটা পর্যায়ে এসে হতাশ হয়ে পড়ে। কী করা উচিত, কীভাবে করা উচিত সেটা নিয়ে তারা বিভ্রান্ত অবস্থায় থাকে।হতাশা থেকে জন্ম নেয় অনীহা, অনীহা থেকে থেকে ব্যর্থতা, আর ব্যর্থতা থেকে আবার হতাশা- এই ব্যর্থতার দুষ্ট চক্রে আবর্তিত মানুষগুলোর বৃত্তকে ভাঙার জন্য নিরলস চেষ্টা করে চলেছেন ঝংকার মাহবুব। তার প্যারাময় লাইফের প্যারাসিটামল এমন আরেকটি প্রয়াস।

পুরো বইটিতে যেন লেখক কথা তার খুব কাছের কোনো ছোট ভাই বা বোনকে। বইয়ে পাঠকের প্রতি সম্বোধনটাই বেশ চমকপ্রদ। ভাষা একেবারেই কথ্য ভাষায়। দারুণসব টুলস রয়েছে বইটিতে- যেগুলো নিজেকে যাচাই করার জন্য দারুণ সহায়ক হবে। এটেনশন চুরি হয়ে যাচ্ছে কিনা সেই মিটার, সারাদিন কীভাবে কাটানো উচিত তারঘণ্টাওয়ারি নকশা, জীবন , জীবনের যাচাইয়ে সূর্য আর মেঘের হিসাব, জীবনটা গঠনমূলক

কাজে ব্যয় হচ্ছে নাকি হারিয়ে যাচ্ছে তার হিসেব- এগুলো পাঠকের সঙ্গে বইটিকে আরও গভীরভাবে যুক্ত করে।

 অনলাইনে প্রাপ্তির লিংকঃ http://bit.ly/2SsSjpw

৪)  নির্বাসন

লেখকঃ সাদাত হোসাইন

নির্বাসন তেমনই এক গল্প যেই গল্পের প্রণোদনা শৈশবে লোকমুখে শোনা কোন গল্পই। যেখানে জীবন এক অদ্ভুত খেয়ালী ঘুড়ির নাম। সে কখনো উড়ে যেতে যেতেসুতোর টানে থমকে দাঁড়ায়, ফিরে আসে নাটাইয়ের কাছে। আবার কখনো কখনো সুতো ছিঁড়ে উড়ে যায় অসীম আকাশে। সেই আকাশ কখনো মেঘ থমথমে বৃষ্টির, কখনো আলো ঝলমলে রোদ্দুরের জীবনও। নির্বাসন তাই জীবনের অন্য নাম।

 সাদাত হোসাইনের সকল বই গত বছর দুই বছর ধরে আলোচনার শীর্ষে। এ বইমেলাতে প্রকাশিত বইটিও দুইবাংলাতে ইতিমধ্যে ব্যাপক সমাদৃত হয়েছে।

 অনলাইনে প্রাপ্তির লিংকঃ http://bit.ly/2Hr6EhN

 ৫ ) ভাল্লাগে না

লেখকঃ আয়মান সাদিক, অন্তিক মাহমুদ

যারা স্বপ্ন দেখতে ভালোবাসেন, যারা ভাল্লাগেনা নামক দুরারোগ্য ব্যাধি থেকে আরোগ্য লাভ করে জীবনে বড় কিছু করতে চান, সত্যিকার অর্থে মাথা তুলে বেঁচে থাকতেচান এ পৃথিবীর বুকে, তাদের জন্য এটা অবশ্য পাঠ্য বই।  বইটিতে খুঁজে পাবেন বেঁচে থাকার নতুন অনুপ্রেরণা। আয়মান সাদিকের এ বইটি  এবারের বইমেলাতে প্রকাশিত বইগুলো সর্বাধিক বিক্রিত বইয়ের সংক্ষিপ্ত তালিকাতে রয়েছে।

 অনলাইনে প্রাপ্তির লিংকঃ http://bit.ly/2sHcJwj

৬) কেমন আছে ফ্রিল্যান্সার নাদিয়া?

লেখকঃ  রাহিতুল ইসলাম

কুমিলা মফস্বল শহরের সাধারণ এক মেয়েকে নিয়ে এই গল্প। উচ্চমাধ্যমিক পাশ করার পর বিয়ে হয়ে যায় নাদিয়ার। শশুর বাড়িতে গিয়ে সে মুখোমুখি হয় দারুণ প্রতিকূল এক পরিস্থিতির। কিন্তু এসবে দমে যায় না নাদিয়া। নিজের মতো করেই পরিকল্পনা সাজায়। তার স্বাবলম্বি হওয়ার গল্প হলো এ উপন্যাস। সফলতা পথ সহজ নয়। নাদিয়াকে নানা বিরূপ পরিস্থিতিতে পড়তে হয়। ঘরে ও বাইরের সেসব বাধা কীভাবে কাটিয়ে ওঠে নাদিয়া? নাদিয়ার মতো মেয়েরা সুযোগ পেলে অনেক কিছু করতে পারে। উপন্যাসে তাই দেখানোর চেষ্টা করা হয়েছে। আবহমান বাঙালি নারীর বৈশ্যিষ্টে এ উপন্যাসের প্রধান চরিত্র নাদিয়া উজ্জ্বল হয়ে ওঠে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত কী ঘটতে যাচ্ছে নাদিয়ার জীবনে? সাধারণ একজন অল্প বয়সী নারী ফ্রিল্যান্সিং পেশা বেছে নেওয়ার পর কীভাবে অসাধারণ হয়ে ওঠে, এটা তারই গল্প। জীবনযুদ্ধে হার মানতে না চাওয়া এক প্রবল নারীর নাম নাদিয়া। নাদিয়া এক অনুপ্রেরণার নাম। উপন্যাসটি ইতিবাচক মনোভাবের চমৎকার উদাহরণ হতে পারে। 

অনলাইনে প্রাপ্তির লিংকঃ http://bit.ly/2DklscM

৭) ইনকাম@ ফেসবুক

লেখকঃ মোঃ ইকরাম

বাংলাদেশের বেকার সমস্যার অনেকটাই সমাধান হয়েছে ফ্রিল্যান্সিং কাজের মাধ্যমে। অনলাইনে ঘরে বসেই প্রচুর মানুষ আয় করে নিজেদের দারিদ্রতা দূর করেছে। সেই অনলাইন ইনকামের একটি চমৎকার গাইডলাইনমূলক বই ইনকাম @ ফেসবুক।

ফেসবুক সবার নেশা। বর্তমান যুগে সময় নষ্টের প্রধাণ হাতিয়ার এটি। কিন্তু এদেশেই অনেকে রয়েছে যারা এ ফেসবুকের নেশাকেই পেশাতে রুপান্তর করেছে। ফেসবুক হতে কিভাবে ইনকাম করা যায়, ফেসবুকের কোন দক্ষতাগুলোকে কাজে লাগিয়ে দেশের বাজারেই সম্মানজনক চাকুরি পেতে পারেন, সেই বিষয়গুলো নিয়ে এ বইটি।

যারা ইকমার্স বিজনেস করছেন, যাদের ব্যবসা ফেসবুকে মার্কেটিংয়ের উপর নির্ভর, আবার যারা অনলাইনে আয় করছেন, কিন্তু আয় বাড়াতে পারছেন না, তাদের জন্য এ বইটি অনেক উপকারে আসবে।

 অনলাইনে প্রাপ্তির লিংকঃ http://bit.ly/2Eg1Zvr

৮) মস্তিষ্কের ক্যানভাস (হার্ডকভার)

লেখকঃ সোলায়মান সুখন

 এ বইটা গল্পের নয় কিংবা দর্শনেরও নয়। সাংঘর্ষিক অনুভূতির সংকলন বলা যেতে পারে। নাগরিক জীবনে প্রতিনিয়ত অনেক কিছু দেখেও না দেখার ভান করারবোকামি চতুরতার অসহায় বহিঃপ্রকাশ। কেউ অনুভূতি লুকিয়ে রাখে, কেউ চুপচাপ ব্যক্তিগত ডায়েরিতে লিখে রাখে, কেউবা ইন্টারনেটে প্রকাশ করে সারা পৃথিবীকেজানিয়ে দিতে চায়।

বইয়ের কোথাও কোনো ধারাবাহিকতা নেই, নেই কোনো পক্ষপাত।

একবার ঘর্মাক্ত রিকশাচালকের মাথায় বয়ে চলা কষ্টের কথা বলা হয়েছে তো আরেকবার শিল্পাঞ্চলের জ্যামে। নিজের বিশাল পাজেরো গাড়িতে বিরক্তি নিয়ে বসে থাকা শিল্পপতির মাথায় কী চিন্তা চলছে তা বোঝার চেষ্টা করা হয়েছে।

কখনো নারীর দৈনন্দিন সংগ্রামের কথা আবার কখানো। ক্রিকেটে জেতার আনন্দ আর ফুটবলে হেরে যাওয়া নিয়ে আক্ষেপ করা হয়েছে। বাংলাদেশকে নিয়ে। একবারঅনেক আশাবাদী আবার পরেরবার হতাশার কথা বলা হয়েছে। সাধারণ বাংলাদেশি মস্তিষ্কে নিউরন সেলের বিক্রিয়াগুলোকে কালো হরফে আঁকার চেষ্টায় এই বই।

 অনলাইনে প্রাপ্তির লিংকঃ http://bit.ly/2S3dqhO

৯) ভাইরে আপুরে!!!

লেখকঃ শাব্বির আহসান          

বইটি সবার জন্য উপযোগী। বিশেষ করে ছাত্রদের জন্য, ছাত্রদের অনেক ধরনের টিপস দ্বারা সাজানো রয়েছে বইটি। বইটি মূলত লেখকের বিভিন্ন সময়ে লেখা ৪৮টি ফেসবুক পোস্টের সমন্বয়ে তৈরি। বইটিতে পাবেন বিভিন্ন আইডিয়া, উৎসাহ, কিভাবে কি করবেন, কোথা থেকে করবেন ইত্যাদি। বাকী বিষয়গুলো জানতে বইটি কিনে ফেলুন তাড়াতাড়ি।

 অনলাইনে প্রাপ্তির লিংকঃ http://bit.ly/2BNjdP2

 ১০) বিবিয়ানা

লেখকঃ কিঙ্কর আহসান

 দুনিয়ায় শেষ বলে কিছু নেই। ক্ষমতাবানের ওপর আছেন আরেক ক্ষমতাবান। এই ক্ষমতার দখলদারিত্ব করতে করতেই জীবনটা শেষ হয়ে আসে।কখনো স্নেহের দখল,কখনো ভালোবাসা,কখনো নিজের মানুষকে আরও নিজের করে নেয়ার দখল!

পুকুরে সোনার মোহরভর্তি কলস উঠে আসার কথা দিয়ে গল্প শুরু।মোহরভর্তি কলস পেঁচিয়ে ছিলো সাপ। স্বপ্নে সাপ,পাপ- এই লোভ, সাপের ভয় যেন সবটা শেষ করলো।স্বামী কালা মিয়াকে নিয়ে ফজিলাতের আক্ষেপের শেষ নেই। বশ্যতা স্বীকার করে নেবার জন্য প্রস্তুত নারী নীরিহ,গোবেচারা মানুষকে মেনে নিবেই বা কেন! অথচ,কালা মিয়ার এসব নিয়ে কোন মাথাব্যথা নেই। খাওয়া পাগল লোকটার ভাবনা জুড়ে ছোটভাই জালাল।বাব-মা মারা যাবার পর যাকে আগলে রেখে বড় করেছেসে।জালাল আজ বড় অফিসার! উচ্চাশার মোহে বিয়ে করেছে সাভেরাকে।ভীষণ আভিজাত্যের মাঝে বড় হওয়া সাভেরা তাই স্বামীর অতীত,গ্রাম্যজীবন এড়িয়েইচলতে চায়।স্বামীকে অনুগত করে রাখতে চাওয়া মেয়েটারও বুকজুড়ে সংসার করার আকাঙ্খা ছিলো।বারোশো স্কয়ারের একটা ফ্ল্যাটে নিজের স্বামী,ছোট্ট মেয়েরুপকথাকে নিয়ে অদ্ভূত সুন্দর সংসার করার স্বপ্ন দেখেছিলো সে! সে স্বপ্ন কি আসলেই পূরণ হয়? অহংকারী সাভেরার চোখে কেন জল আসে? জানতে হলে পড়ুন বিবিয়ানা। আপনার চোখেও জল আসবেই

 অনলাইনে প্রাপ্তির লিংকঃ http://bit.ly/2sQrDjO

বাংলা/এসি

সংশ্লিষ্ট বিষয়

গ্রন্থমেলা একুশে

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0196 seconds.