• ফিচার ডেস্ক
  • ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ২০:০৯:১৪
  • ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ ২০:০৯:১৪
অন্যকে জানাতে পারেন: Facebook Twitter Google+ LinkedIn Save to Facebook প্রিন্ট করুন

চকলেট খেয়েছেন কি!

ছবি: সংগৃহীত

দিনের শুরুতেই খেয়ে নিন একটি চকলেট। আর এর মাধ্যমেই আপনার দিনের শুরুটাই মিষ্টি করে তুলুন। আপনি জানেন তো আজ চকলেট ডে? ফেব্রুয়ারি মাসের ৯ তারিখ দিনটি বিশ্বব্যাপী চকলেট ডে হিসেবে উদযাপিত হয়।

আজকের এই দিনটাতে প্রিয়জনের প্রতি মিষ্টি ভালোবাসা প্রকাশ করুন কিছু চকলেট এর মাধ্যমেই। প্রিয়জনের সামনে হাজির হয়ে যান তার পছন্দের কিছু চকলেট সমেত। এই দিনে আপনার বন্ধুদের সাথেও করতে পারেন চকলেট বিনিময়। নিজেকে ভালোবেসে নিজের জন্যও বরাদ্দ রাখতে পারেন কিছু চকলেট। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক এই চকলেট সম্পর্কে জানা অজানা কিছু তথ্য। 

চকলেট হলো ঈশ্বরের খাবার, এমনটাই মনে করা হতো ৫০০ খ্রিষ্ট পূর্বে। কোকোয়া হল চকলেট তৈরির মূল উপাদান। ‘কাকাওয়া’ শব্দের অর্থ ঈশ্বরের খাবার। আর এই ‘কাকাওয়া’ থেকেই এসেছে কোকোয়া শব্দটি। মধ্য আমেরিকায় বসবাসকারী ওলমেক জাতি ১৫০০ থেকে ৫০০ খ্রিষ্ট পূর্ব মানুষেরাই এই নাম দিয়েছিলো। মায়া সভ্যতায় চকলেটকে পানীয় হিসেবে খেতেন শুধু ধনীরাই। তবে চকলেট শুধু ধনীদের মাঝেই সীমাবদ্ধ না থেকে সর্বসাধারণের খাবারে পরিণত হয় ইউরোপীয় মায়া সভ্যতা আবিষ্কারের পর থেকে। 

কোকোয়ার নানা গুনের কথা জানা গেছে এক গবেষণার মাধ্যমে। ফ্ল্যাভানল নামের একটি অ্যান্টঅক্সিডেন্ট রয়েছে কোকোয়াতে। মস্তিষ্কে রক্ত সঞ্চান স্বাভাবিক রাখতে সহায়তা করে এই অ্যান্টঅক্সিডেন্ট। এর ফলে স্মৃতিশক্তি ভালো থাকে। চকলেটে কোকোয়ার পরিমাণ বেশি থাকলে তা শরীরের জন্য অনেকটাই ভালো। আর এই কারণেই বেশি স্বাস্থকর ডার্ক চকলেট।

মন খারাপ থাকলে একটা চকলেট খেয়ে নিন, দেখবেন আপনার মন অনেকটাই ভালো হয়ে গেছে। কারণ চকলেটে ম্যাগনেসিয়াম শরীরকে রিল্যাক্স করতে সাহায্য করে। এছাড়া আপনার মনকে ভালো রাখতে সাহায্য করে চকলেটে থাকা অ্যানানডামাইড নামের নিউরোট্রান্সমিটার।

বাংলা/টিএ/এমএইচ

সংশ্লিষ্ট বিষয়

চকলেট ডে

আপনার মন্তব্য

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
Page rendered in: 0.0194 seconds.